‘নো ব্রা ডে’ ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতায়

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১ | ৬ কার্তিক ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

‘নো ব্রা ডে’ ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতায়

নিজস্ব প্রতিবেদক
🕐 ৫:২৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০২১

‘নো ব্রা ডে’ ব্রেস্ট ক্যান্সার সচেতনতায়

স্তন ক্যানসার অ্যাওয়ারনেস এর অংশ হিসেবে আজ (১৩ অক্টোবর) বিশ্বের প্রায় অর্ধশত দেশে পালিত হচ্ছে ‘নো ব্রা ডে’। স্তন ক্যানসার আক্রান্ত রোগী, সারভাইভারসহ সকল নারীকে এই দিনে আহ্বান করা হয় সারাদিন অন্তর্বাস না পরেই স্বাভাবিক কাজকর্মে অংশ নিতে। পুরুষরাও পার্পল রঙের পোশাক পরে এই দিবসটি পালন করে থাকেন।

সারা বিশ্বে কোটি কোটি নারী প্রতিদিনই ‘ব্রা’ নামের অন্তর্বাসটি পরিধান করে থাকেন; বাংলায় বলা হয় বক্ষবন্ধনী। বিশেষ এই পোশাকের পেটেন্ট নথিভুক্ত করা হয় ১৯১৪ সালে। তবে নারীবাদীর দ্বারা ষাটের দশকে বক্ষবন্ধনীর বিরুদ্ধে আন্দোলনে পোড়ানো শুরু হয় পোশাকটি। কিন্তু পরিস্থিতি পাল্টাতে বেশি সময় লাগল না। আবার এই পোশাকে ফিরে আসলো নারীরা। তবে সাম্প্রতিক সময়ে কিছু গবেষণায় পোশাকটির বিভিন্ন নেতিবাচক দিক ধরা পড়ায় সচেতনতা তৈরিতে পালন করা হচ্ছে ‘নো ব্রা ডে’।

দিবসটির শুরু খুব বেশি দিনের নয়। ২০১১ সাল থেকে মহিলাদের প্রচারে হ্যাশট্যাগে ‘নো ব্রা ডে’ ব্যবহার করা হয়। বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, অতিরিক্ত বক্ষবন্ধনীর ব্যবহার ডেকে আনে স্তন ক্যানসার। এর লক্ষ্য সচেতনতা বাড়াতে এবং স্ব-পরীক্ষা, স্ক্রিনিং করা এবং তাদের স্তন ক্যান্সারের লক্ষণগুলো নিশ্চিত করার জন্য নারীদেরকে উৎসাহিত করা।

বিষয়টা হয়তো বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে কল্পনা করা অপ্রাসঙ্গিক। কিন্তু বিশ্বের অনেক দেশেই এখন নারীরা ব্রা না পরেই তার পোশাক পরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন শপিং মল, অফিস এবং বাসায়। আর দিন দিন এর সংখ্যাটা বাড়ছে। তবে এটাও ঠিক যে, ভারতসহ বিশ্বের বহু দেশেই ব্রা ব্যবহারের হার কমছে বলে জানাচ্ছে বিপণন পরিসংখ্যান। অনেক নারীর মতে, শারীরিক আকর্ষণ বৃদ্ধির চেয়ে বাঁচার ইচ্ছের তীব্রতা ঢের বেশি!

 
Electronic Paper