দুর্গাপুর পৌর নির্বাচন: আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে ভাঙচুর

ঢাকা, সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১ | ৬ বৈশাখ ১৪২৮

দুর্গাপুর পৌর নির্বাচন: আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে ভাঙচুর

দুর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি ৮:৩১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১

print
দুর্গাপুর পৌর নির্বাচন: আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচনী অফিসে ভাঙচুর

রাজশাহীর দুর্গাপুর পৌরসভা নির্বাচনের আগ মুহূর্তে নৌকা প্রতীকের দুটি নির্বাচনী প্রচার অফিসে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় দুর্গাপুর থানায় মামলা হয়েছে। গত শুক্রবার গভীর রাতে দুর্গাপুর সদর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ও সিংগা বাজার পুরাতন বাসটার্মিনাল সংলগ্ন আ. লীগ সমর্থিত তোফাজ্জল হোসেনের নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচার অফিসে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর থেকে দুর্গাপুর সদরসহ আশপাশের এলাকাজুড়ে ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। তবে যে কোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, আজ (২৮ ফেব্রুয়ারি) পঞ্চমধাপে দুর্গাপুর পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণার শেষ দিন গত শুক্রবার রাতে পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড দুর্গাপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ও ভোর সাড়ে ৪টার দিকে সিংগা বাজার পুরাতন বাসটার্মিনাল সংলগ্ন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনের নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী প্রচার অফিসে ভাঙচুর ও অগ্নিকাণ্ড চালানো হয়। পরে খবর পেয়ে থানার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় তারা ভাঙচুর করা আসবাবপত্র, আগুনে পুড়ে যাওয়া প্লাস্টিকের চেয়ার, কাপড়ের পর্দা ও তেল বহনকারী প্লাস্টিকের বোতল আলামত হিসেবে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

দুর্গাপুর থানার ওসি হাশমত আলী বলেন, দুর্গাপুর সদর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন নৌকার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতা আমজাদ আলী বাদী হয়ে নামীয় ও অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করেছে। আর সিংগা বাজার পুরাতন বাসটার্মিনাল ওই ঘটনার তদন্ত চলছে। থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে আসবাবপত্র, পোড়া চেয়ারসহ বিভিন্ন আলামত উদ্ধার করেছে।

ওসি আরও বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে দেওয়া যাবে না। পৌরসভায় ১১টি ভোট কেন্দ্রে ৯ জন নির্বাহী ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।