ক্ষমা লাভের মহাসুযোগ

ঢাকা, বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০ | ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

ক্ষমা লাভের মহাসুযোগ

ডেস্ক রিপোর্ট ১২:২৩ পূর্বাহ্ণ, মে ০৮, ২০২০

print
ক্ষমা লাভের মহাসুযোগ

মাহে রমজান এতটাই ফজিলত ও সম্মানের মাস যে, এ মাসের সম্মানে এবং এ মাসে মহান আল্লাহর জন্য সিয়াম পালনকারীদের সম্মানে মহান আল্লাহ জান্নাতকে বিশেষভাবে সজ্জিত করেন। জান্নাতি হুর ও গিলমান মাহে রমজানের আগমনের অপেক্ষায় থাকে।

রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, মাহে রমজানের সম্মানে বছরের শুরু থেকে পরবর্তী বছর পর্যন্ত জান্নাতকে সজ্জিত করা হয়। অতঃপর রমজানের প্রথম দিনের আগমনে আরশের তলদেশ থেকে জান্নাতি পত্রপল্লব আন্দোলিত করে বায়ু প্রবাহিত হতে থাকে। এ বায়ু যখন হুর ও গিলমানকে স্পর্শ করে তখন তারা বলতে থাকে, হে প্রতিপালক আপনার যেসব বান্দার সম্মানে এ আয়োজন তাদের আপনি আমাদের সাথী করে দেবেন, তাদের পেয়ে আমাদের নয়ন জুড়াবে, চক্ষু শীতল হবে এবং আমাদের পেয়ে তারা খুশি হবে।

গুনাহগার বান্দার গুনাহ মাফ ও ক্ষমা লাভের মহাসুযোগ রয়েছে এ রমজান মাসে। একান্ত নিষ্ঠার সঙ্গে ইবাদত বন্দেগি ও তওবা ইস্তিগফারের মাধ্যমে বান্দা পাপ পঙ্কিলতা থেকে পাকসাফ হয়ে পরিচ্ছন্ন জীবনের আবতরী হওয়ার মহাসুযোগ রয়েছে রমজান মাসে। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, যে ব্যক্তি পূর্ণ ঈমান ও মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় রমজান মাসে রোজা পালন করবে তার অতীতের গুনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে।

যে ব্যক্তি ইমানের সঙ্গে সওয়াবের আশায় মাহে রমজানের ইবাদত বন্দেগি করবে তার অতীতের গুনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে এবং যে ব্যক্তি লাইলাতুল কদরে ইবাদত বন্দেগি করবে ঈমানের সঙ্গে সওয়াবের আশায় তার অতীতের গুনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে।