ফুলবাড়ী পুলিশের করোনাযুদ্ধ

ঢাকা, শুক্রবার, ৭ আগস্ট ২০২০ | ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭

ফুলবাড়ী পুলিশের করোনাযুদ্ধ

মেহেদী হাসান উজ্বল, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর ১০:০৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৪, ২০২০

print
ফুলবাড়ী পুলিশের করোনাযুদ্ধ

করোনা রোধে জনগণকে সচেতন করা ও নিরাপদ রাখার জন্য দিনাজপুরের ফুলবাড়ী থানার পুলিশ সদস্যরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। তাদের নেতৃত্বে রয়েছেন দিনাজপুর জেলা পুলিশ সুপার মো. আনোয়ার হোসেন পিপিএম বিপিএম বার।

বিদেশ ফেরত এবং ঢাকা ও চিটাগাংসহ বাইরে থেকে আসা মানুষের কারণে যেন করোনা ছড়িয়ে না পড়ে সেদিকে খেয়াল রেখে তাদের খোঁজখবর রাখা এবং ব্যবস্থা গ্রহণে উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি ফুলবাড়ী থানা পুলিশ তৎপর। রাতদিন মাঠে তৎপর থাকায় প্রশংসা কুড়িয়েছেন তারা। উপজেলার মানুষ থানা পুলিশের এই তৎপরতাকে প্রকৃতপক্ষেই মানবিক মনে করছেন।

থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: ফখরুল ইসলাম বলেন, ইতোপূর্বে করোনার এই দুর্যোগ মোকাবেলায় তিনি ও থানার অন্যান্য অফিসার থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত মোট ৫৭ জন পুলিশের একদিনের বেতন সমতুল্য টাকা জেলা পুলিশের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে প্রদান করা হয়েছে। করোনা প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করতে ও নিরাপদ রাখার জন্য থানা পুলিশ প্রতিদিন সকাল-সন্ধ্যা উপজেলার পৌর শহর, হাট-বাজার ও বিভিন্ন গ্রামে একযোগে ব্যাপক তৎপরতা অব্যাহত রেখেছেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এনায়েতুল্লাহ্্ নাজিম বলেন, এ পর্যন্ত ফুলবাড়ী উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২জন, এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৮জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ১জন। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি তাকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেছেন ফুলবাড়ী থানা পুলিশ।

ওসি মো: ফখরুল ইসলাম, পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) তদন্ত মো: মাহামুদুল হাসান ও থানার অন্যান্য অফিসার থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত সবাই দিনাজপুর  জেলা পুলিশ সুপার মো: আনোয়ার হোসেন পিপিএম বিপিএম বার এবং ফুলবাড়ী থানার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ফুলবাড়ী সার্কেল) মিঞা আসিশ বিন হাসানের সার্বিক দিক নির্দেশনায় শহরের প্রবেশদ্বারে চেকপোস্ট বসিয়ে চলাচল নিয়ন্ত্রণ করছেন। পৌর শহর ও উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত পল্লীতে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, মাস্ক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করা, দোকান বন্ধ রাখা, অপ্রয়োজনে বাড়ীর বাইরে না আসার জন্য প্রচারণা, আক্রান্ত ব্যাক্তিদের বাড়ী লকডাউন করা, তাদের সবরকম খোঁজখবর রাখা এবং যেকোনো পরিস্থিতিতে থানা পুলিশ প্রয়োজনে যে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করায় আগের চেয়ে পরিস্থিতি অনেকটাই উন্নত হয়েছে ফুলবাড়ীতে।

প্রতিদিনই থানা পুলিশ কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে বিভিন্ন স্থানে তৎপরতা চালাচ্ছে। বিভিন্ন মোড়ে যারা ভিড় জমাচ্ছেন, তাদেরকে বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করছে। তাদের তৎপরতায় সাধারণ মানুষের নির্ধারিত সময়ের পর বাড়ির বাইরে আসা অনেকটাই কমে গেছে। বন্ধ থাকছে দোকান।