পরিবাহক রণতরী

ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০১৯ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

পরিবাহক রণতরী

বিবিধ ডেস্ক ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১১, ২০১৯

print
পরিবাহক রণতরী

যুদ্ধবিমান পরিবাহক হলো সেই রণতরী যা সমুদ্রে চলমান অবস্থায় একটি বিমানঘাঁটি রূপে কাজ করে, যাতে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্যরে ফ্লাইট ডেক থাকে এবং এতে যুদ্ধবিমান বহন, অস্ত্রসজ্জিত, উড্ডয়ন এবং পুনরুদ্ধার করার জন্য সুযোগ-সুবিধা থাকে। সাধারণত, এটি হলো বহরের সবচাইতে মূল্যবান জাহাজ, একটি নৌবাহিনীকে সারা বিশ্বের কাছে তার আকাশের শক্তি প্রদর্শন দেখাতে সহায়তা করে স্থানীয় ঘাঁটিতে থাকা বিমানবাহিনীর কার্যক্রম ছাড়াই।

পরিবাহকগুলোর বিকাশের সূত্রপাত হয়েছে বিংশ শতকের শুরুর দিক থেকে যখন কাঠের জাহাজ থেকে বেলুন উড়ানো হতো। বর্তমানে নিউক্লিয়ার-পাওয়ারড রণতরী অসংখ্য জঙ্গিবিমান, বোমারু বিমান, হেলিকপ্টার, ও অন্যান্য ধরনের বিমান বহন করছে। এগুলো ছাড়াও অনেক ভারী বিমান যেমন- ফিক্সড-উইংস গানশিপ ও বোমারু বিমানও যুদ্ধবিমান পরিবাহক।

বিশ্বের বারোটি নৌবাহিনীর ৩৭টি কার্যরত যুদ্ধবিমান পরিবাহক চালু রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নেভির ১০টি বৃহৎ যুদ্ধবিমান পরিবাহক রয়েছে। যা সুপারক্যারিয়ার নামে পরিচিত। প্রতিটি প্রায় ৮০টি ফাইটার জেট বহন করতে পারে। যা বিশ্বের বৃহত্তম পরিবাহক; এর মোট মিলিত ডেকস্পেস অন্য সব দেশের পরিবাহকের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণেরও বেশি। একই সঙ্গে সুপারক্যারিয়ার বহরের পাশাপাশি মার্কিন নৌবাহিনীর আক্রমণ করার জন্য নয়টি উভচর আক্রমণকারী জাহাজ রয়েছে যা মূলত, ব্যবহৃত হয় হেলিকপ্টার পরিবহনে।

চীন, ফ্রান্স, ভারত ও রাশিয়ার প্রত্যেকে মাঝারি আকারের পরিবাহক পরিচালনা করে যা ৩০ থেকে ৫০টি ফাইটার জেট পরিবহনের ক্ষমতাসম্পন্ন।