পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬

পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি

বিজ্ঞান

ফাতেমা বেগম তমা ৪:২৮ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৯

print
পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি

প্রশ্ন : ডেংগু প্রতিরোধে কী কী করবে?
উত্তর : স্ত্রী এডিস মশা ডেংগু জ্বরের বাহক। আমাদের দেশে বর্তমানে ডেংগু জ্বরের প্রকোপ বাড়ছে।
* যেহেতু ডেংগুর কোনো প্রতিষেধক বের হয়নি সেজন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে।
* ডেংগু প্রতিরোধ করতে হলে এডিস মশার আবাসস্থল, যেমন- কোনো ভাঙা দ্রব্যাদি, ফুলের টব, টায়ার ইত্যাদিতে পানি জমতে দেয়া যাবে না। কারণ এসব পানিতে এডিস মশা বংশবৃদ্ধি করে।
* এডিস মশা সকাল ও সন্ধ্যার আগে কামড়ায়। এ ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।
* ডেংগু জ্বরের ব্যাপারে র‌্যালি, সেমিনার ইত্যাদির মাধ্যমে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে।
* এডিস মশা চেনার উপায় ও রোগের লক্ষণ ইত্যাদি জনগণকে বেশি করে জানাতে হবে।
সুতরা, ডেংগু জ্বর প্রতিরোধের একমাত্র উপায় হলো জনসচেতনতা বৃদ্ধি।

প্রশ্ন : সোয়াইন ফ্লু সম্পর্কে কিভাবে তোমার এলাকায় সচেতনতা সৃষ্টি করবে তার দুটো উপায় লেখ।

উত্তর : এইচ ওয়ান এন ওয়ান নামক এক ধরনের ভাইরাসের কারণে সোয়াইন ফ্লু হয়। অতি সম্প্রতি আমাদের দেশে এ রোগের বিস্তার ঘটেছে।
সোয়াইন ফ্লু সম্পর্কে আমি আমার এলাকায় যেভাবে সচেতনতা সৃষ্টি করব তার দুটি উপায় নিচে দেয়া হলো-
আক্রান্ত পশুপাখির সংস্পর্শে এলে বা অল্প সিদ্ধ মাংস খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করলে মানুষ আক্রান্ত হয়। এ ব্যাপারগুলো জানিয়ে জনসচেতনতামূলক কর্মসূচি হিসেবে এলাকায় র‌্যালি, সেমিনার ইত্যাদির আয়োজন করতে পারি।
এলাকার নাট্যদল বা সাংস্কৃতিক কর্মীদের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি গিয়ে এ ব্যাপারে সচেতন করা যেতে পারে বা তাদের দিয়ে সোয়াইন ফ্লু সচেতনতাবিষয়ক পথ নাটকের আয়োজন করা যেতে পারে। দেখাতে পারি, আক্রান্ত ব্যক্তির কোনো কিছু যেমন- কম্পিউটার, টেলিফোন, টেবিল ইত্যাদি স্পর্শ করা যাবে না। বারবার হাত ধুতে হবে।
সুতরাং, এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে নানা সামাজিক কর্মসূচির মাধ্যমে এলাকায় সচেতনতা সৃষ্টি করব।

প্রশ্ন : সংক্রামক রোগ কী? সংক্রামক রোগ কীভাবে প্রতিরোধ করা যায় তা উল্লেখ কর।
উত্তর :
সংক্রামক রোগ : কিছু রোগ আছে যেগুলো একজন থেকে অন্যজনে ছড়ায়। এসব রোগের জীবাণু রোগীর কফ, থুথু, হাঁচি-কাশির মাধ্যমে ছড়ায়।
সর্দি জ্বর বা ইনফ্লুয়েঞ্জাসহ সোয়াইন ফ্লু, জন্ডিস, বসন্ত, হাম, পাঁচড়া, চুলকানি ইত্যাদি সংক্রামক রোগ। আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এবং খাদ্য, পানি ও বায়ুর মাধ্যমেও ছড়ায়।
প্রতিরোধ : সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ করার জন্য আমি নিচের ব্যবস্থাগুলো করব।
* পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে।
* আমাদের নিয়মিত দাঁত মাজা, নখ কাটা, হাত ধোয়া ও গোসল করা উচিত।
* সংক্রামক রোগ থেকে রক্ষা পেতে হলে যেখানে সেখানে কফ, থুথু ইত্যাদি ফেলব না।
* হাঁচি, কাশি হলে মুখ হাত বা রুমাল দিয়ে ঢাকতে হবে।
সুতরাং সংক্রামক রোগের সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে হলে আমাদের ওপরের নিয়মগুলো সাবধানতার সঙ্গে পালন করতে হবে।

সিনিয়র শিক্ষক
বর্ণমালা আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় ও কলেজ, ঢাকা।