ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ | ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

অভিনয়ে নিষিদ্ধ চমক

অনলাইন ডেস্ক
🕐 ৪:০১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২৩

অভিনয়ে নিষিদ্ধ চমক

সম্প্রতি একটি নাটকের শুটিং সেটে দুর্ব্যবহারের অভিযোগে দোষী প্রমাণ হওয়ায় অভিনয় থেকে তিন মাসের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন ছোট পর্দার অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক।

সোমবার (২১ আগস্ট) একটি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই অভিনেত্রীকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে তিন মাসের জন্য এই অভিনেত্রীকে সব প্রকার কাজ না করার নির্দেশ দেয় টেলিভিশন নির্মাতাদের সংগঠন ডিরেক্টরস গিল্ড।

ডিরেক্টরস গিল্ড থেকে আরও জানানো হয় বুধবার (৩০ আগস্ট) এর মধ্যে নাটকের যে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ছিল তা দিতে নির্দেশ প্রদান করে অভিনেত্রী চমককে।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের আরও জানানো হয়, আপনারা নির্মাতাদের সবচেয়ে নিকট স্বজন ও সহযাত্রী তাই আপনাদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, রোববার (১৩ আগস্ট) অভিনয়শিল্পী রুকায়াইয়া জাহান চমকের বিরুদ্ধে ডিরেক্টরস গিল্ড বাংলাদেশ এর সম্মানিত সদস্য নির্মাতা আদিব হাসানের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিন সংগঠনের সমন্বয়ে নিকেতন কার্যালয়ে অভিযোগ নিষ্পত্তি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উভয় পক্ষের বিস্তারিত বক্তব্য শোনার পর তিনটি সংগঠনের উপস্থিত সবার কাছেই প্রমাণিত হয় যে, অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক শুটিং সেটে দেরি করে যায়। পরিচালক, প্রবীণ অভিনেতা মাসুম বাশার, গীতশ্রী চৌধুরী, আরশ খান, চিত্রগ্রাহক, প্রোডাকশন ম্যানেজার, প্রোডাকশন বয়, মেকআপ ম্যানসহ ৪ আগস্টের শুটিং ইউনিটের সকলের সঙ্গে চূড়ান্ত রকম খারাপ ব্যবহার করেন। দুই দফায় পুলিশ ডেকে এনে শুটিং ইউনিটের অন্যান্য অভিনয়শিল্পীসহ টেকনিক্যাল টিম এর সবাইকে হুমকি দিতে থাকে।

এক পর্যায়ে অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক প্রবীণ অভিনেতা মাসুম বাশারকে মারার জন্য তেড়ে যায় যা ইতোমধ্যেই বিভিন্ন গণমাধ্যমে মাসুম বাশারের ইন্টারভিউতে সকলে জেনেছেন। শুটিং সেটে তাকে আটকে রাখা হয়েছে বলে পুলিশের কাছে মিথ্যাচার করে। শুধুমাত্র তার কারণেই শুটিং বন্ধ হয়ে যায় বিধায় নাটকের পরিচালক মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিচালককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

আরও বলা হয়, শুধু তাই নয় উক্ত ঘটনার পর ডিরেক্টরস গিল্ড বাংলাদেশ ও অভিনয়শিল্পী সংঘের প্রতিনিধিরা উপস্থিত হয়ে বিষয়টি সাংগঠনিকভাবে সমাধান করবেন বলে দায়িত্ব নেবার পর অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক যে সকল সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত গুলো অমান্য করেন, তিনদিন পরে নির্মাতার নামে অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। সংগঠনগুলোর অনুরোধ উপেক্ষা করে মিডিয়ার সঙ্গে একের পরে এক কথা বলে এবং অডিও বার্তা রেকর্ড করে সাংবাদিকসহ মিডিয়া সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মানুষকে পাঠায় যাহা সংগঠনের জন্য অসম্মান জনক ও বিব্রত কর।

সকল সংগঠনের সিদ্ধান্ত অমান্য করে অভিযোগ নিষ্পত্তিতে বসার পূর্বের দিন অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক সাংবাদিক সম্মেলন করে নিজের অপরাধ ঢাকার জন্য পুরো ঘটনাটি নিয়ে মিথ্যাচার করে। এতগুলো ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের মাধ্যমে সংগঠনগুলোকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখানোর কারণে এবং মিডিয়াতে পেশাগত পরিবেশ রক্ষার স্বার্থে ডিরেক্টস গিল্ড বাংলাদেশ মনে করে অভিযুক্ত অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমককে তার সকল অপরাধের শাস্তি স্বরূপ ন্যূনতম ৩ মাসের জন্য পেশাগত কাজ থেকে দূরে রাখা হোক।

সকল অভিনয়শিল্পী নির্মাতাদের আত্মার আত্মীয় পেশাগত কাজের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশীজন আমাদের এই সৃজনশীল মাধ্যমে নির্মাতা অভিনয়শিল্পীর পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ ও প্রেমময় বোঝাপরা ছাড়া সৃজনশীল ভালো কাজ হওয়া কোনো ভাবেই সম্ভব নয়। সে কারণে কোনো অভিনয়শিল্পীর সঙ্গে আমাদের কোনো বিরোধ নেই। আমরা সকল অভিনয়শিল্পীকে সম্মান করি ভালোবাসি।

এর আগে, সহশিল্পী আরশ খানের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ আনেন অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমক। তার দাবি, এই অভিনেতা তার কাছে বন্ধুর চেয়ে বেশি কিছু চেয়েছেন। তিনি তাতে রাজি না হওয়ায় ষড়যন্ত্র শুরু করেছেন।

সমস্যার সূত্রপাত হয় ৪ আগস্ট। সেদিন আদিব হাসান পরিচালিত একটি নাটকের সেটে চমকের দেরি করে উপস্থিত হওয়া নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়। জানা যায়, তিনি নাকি শুটিংয়ের সবার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন। সিনিয়র শিল্পীকে ছেড়ে কথা বলেননি। এমনকি সেটে পুলিশও আসে।

এরপর আদিব হাসান ডিরেক্টরস গিল্ডের কাছে অভিযোগ করেন। অন্যদিকে চমকও অভিনয় শিল্পী সংঘের কাছে অভিযোগ দেন। বিষয়টি নিয়ে মাথা ঘামিয়েছে টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টেলিপ্যাব), ডিরেক্টরস গিল্ড ও অভিনয়শিল্পী সংঘের নেতারা। সংগঠন তিনটি রোববার (১৩ আগস্ট) বিকেলে সমস্যাটির সমাধানে বসে। এ সময় অভিযোগকারী চমক ও নির্মাতা আদিব হাসানের অভিযোগ শোনা হয়। সেইসঙ্গে সাক্ষী হিসেবে অভিনেতা আরশ খানের বক্তব্য শোনেন সংগঠনের নেতারা।

এরপর সোমবার (১৪ আগস্ট) অভিনয়শিল্পী সংঘ এক বার্তায় সভার সিদ্ধান্ত লিখিত আকারে পাঠায়। সেখানে অভিনেত্রী চমককে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। এতে আগামী ছয় মাসের জন্য চার শর্তে অভিনয় ও ব্যক্তিগত কাজ মেনে চলার নির্দেশ দেওয়া হয়।

নিজের কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত হন চমক। সেইসঙ্গে ফখরুল বাশার মাসুম ও আরশ খানের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেন। এ ছাড়া ভবিষ্যতে এই ধরনের কাজ করবেন না মর্মে লিখিত অঙ্গীকার দেন। তবে যে নাটকের সেটে ঘটনাটি ঘটেছিল এবং সে সময় যারা উপস্থিত ছিলেন ওই নাটকের সেটে তাদের সবার সামনে চমককে দুঃখ প্রকাশ করতে হবে বলে সংগঠনগুলো থেকে জানানো হয়েছে।

 
Electronic Paper