ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০২৪ | ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নওগাঁয় ১৪ লক্ষ টাকা ছিনতাই, আটক ২

নওগাঁ প্রতিনিধি
🕐 ৪:৩৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ২১, ২০২৩

নওগাঁয় ১৪ লক্ষ টাকা ছিনতাই, আটক ২

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলায় ধান ব্যবসায়ীকে মারপিট, চোথে মরিচের গুড়া ছিটিয়ে এবং দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ১৪ লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় ৪৮ ঘন্টার মধ্যে দুই ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের নিকট থেকে ছিনতাই করা ২ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা এবং ছিনতাইয়ের টাকা দিয়ে ক্রয়কৃত মোবাইল ফোন, গহনা এবং ফ্রিজ উদ্ধার করা হয়েছে।

 

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় নওগাঁর পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক তাঁর সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য প্রদান করেছেন।

পুলিশ সুপার বলেন, মহাদেবপুর উপজেলার বেলট গ্রামের মৃত মনছুর আলী সরদারের পুত্র ধান ব্যবসায়ী মোঃ আব্দুল জব্বার গত ১৬ মার্চ বৃহষ্পতিবার বেলা ৩টায় ইসলামী ব্যাংক নজিপুর শাখা থেকে ১৩ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা উঠিয়ে নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে নিজ গ্রামে ফিরছিলেন। বেলা ৩টা ৪০ মিনিটে বাড়ির কাছাকাছি মহাদেবপুর-মাতাজিহাট সড়কে বেলটের মোড়ে পৌঁছলে ২টি মোটর সাইকেলে ৪ জন ছিনতাইকারী আব্দুল জব্বারের মোটরসাইকেলের সমান্তরাল চলতে থাকে। এক পর্যায় ছিনতাইকারীরা লাথি দিয়ে আব্দুল জব্বারকে ফেলে দেয়। সমন্বিতভাবে তারা আব্দুল জব্বারের উপর চড়াও হয়ে এলোপাতারী মারপিট করে। মরিচের গুড়া চোখে ছিটিয়ে দেয়। এতে জব্বার মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এ সময় তারা দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তার নিকট থাকা ব্যাংক থেকে উত্তোলনকৃত ১৩ লক্ষ ৯০ হাজা এবং তার পকেটে থাকা আরও ২০ হাজার টাকাসহ মোট ১৪ লক্ষ ১০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।

এ সংবাদ পেয়ে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হকের নির্দেশনা অনুযায়ী মহাদেবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জয়ব্রত পালের নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করা হয়। মহাদেবপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মোজাফর হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত এই টীম কার্যক্রম শুরু করে। ১৭ মার্চ ৩৯৪ পেনাল কোড অনুযায়ী একটি মামলা দায়ের করা হয়।

তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ঘটনার সময় ইসলামী ব্যাংক নজিপুর শাখা এলাকায় কোন কোন মোবাইল থেকে কে কে কথা বলেছেন তা নির্নয় করা হয়। এই সূত্র ধরে জয়পুরহাট ও বগুড়া জেলায় অভিযান শুরু করে পুলিশ।

এরই এক পর্যায় গত ১৯ মার্চ জয়পুরহাট জেলার কাশিয়াবাড়ি গ্রাম থেকে মোঃ রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। সে ঐ গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র। তার নিকট থেকে ১ লক্ষ ৬০ হাজার নগদ টাকা এবং ছিনতাইয়ের টাকা দিয়ে ক্রয়কৃত একটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী ঐদিনই বগুড়া শহর থেকে মোঃ লিমন হোসেন মিন্টুকে গ্রেফতার করা হয়। মিন্টু জয়পুরহাট জেলার তেঘরিয়া গ্রামের মহাতাব উদ্দিন মন্ডলের পুত্র। সে বগুড়ায় ভাড়া বাসায় বসবাস করছিল। তার নিকট থেকে ছিনতাইয়ের নগদ ৭০ হাজার টাকা এবং ছিনতাইয়ের টাকা দিয়ে ক্রয়কৃত একটি ফ্রিজ ও সোনার গহনা উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সুপার জানিয়েছেন অভিযান অব্যাহত আছে। অপর দুই ছিনতাইকারী এবং ছিনতাইয়ের অবশিষ্ট টাকা উদ্ধারের প্রচেষ্টা চলমান রয়েছে। শীঘ্রই তা সম্ভব হবে।

 
Electronic Paper