ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ | ৬ বৈশাখ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

খালেদা জিয়া মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন: ফখরুল

অনলাইন ডেস্ক
🕐 ১:০৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০১, ২০২৪

খালেদা জিয়া মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন: ফখরুল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ‘মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন’ বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, আমাদের নেত্রী মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন। তার জন্য দোয়া করবেন, তিনি যেন সুস্থ হয়ে উঠেন।

 

রোববার (৩১ মার্চ) রাজধানীর লেডিস ক্লাবে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ) আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে জেডআরএফ প্রেসিডেন্ট ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলতে ষড়যন্ত্র চলছে। শুধু তা-ই নয়, জিয়াউর রহমানের বিষয়ে ভুল তথ্য ছড়ানো হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে। জিয়াউর রহমানের অবদান তুলে ধরে তা প্রচার করতে হবে। তার সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য সম্বলিত পুস্তক নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।

তিনি বলেন, আজকে দেশে উন্নয়নের গান গায় সরকার। এই উন্নয়ন তো শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান শুরু করেছিলেন। তিনি তো স্বল্প সময়ে উন্নয়নের বিপ্লব ঘটিয়েছিলেন।

অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, এসব অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আমাদের শক্তিশালী হতে হবে। যতদিন পর্যন্ত না লক্ষ্য আদায় হয় আরও তীব্রতর আন্দোলন করতে হবে। খালেদা জিয়া সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত। সেবা পাওয়ার মৌলিক অধিকার থেকে তিনি বঞ্চিত। অথচ তিনি গণতন্ত্র রক্ষায় আজীবন লড়াই করছেন।

তিনি বলেন, আমরা ভোট বর্জন করেছি। এবার ভারতীয় পণ্য বর্জন করতে হবে। আসুন ভারতের নিকৃষ্টতম পণ্য আওয়ামী লীগকে বর্জন করি।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশ এখন ঘোর দুর্দিন অতিক্রম করছে। সত্যকে সত্য বলা যায় না। রাষ্ট্র যদি বলে এটা সত্য সেটাই মানতে হবে। গণতন্ত্র ধ্বংস যারা করেন তাদের বলা হয় গণতন্ত্র রক্ষার প্রতীক! এ রীতি চালু করেছেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, একটি বেপরোয়া সরকার অবৈধভাবে ক্ষমতাসীন হয়ে জনগণের ওপর ছড়ি ঘোরাচ্ছে। গণতন্ত্রের নিয়ম-কানুন ও প্রথা-রীতি সব ধ্বংস করা হয়ে গেছে। কেউ যেন কথা বলতে না পারে, প্রতিবাদ না করতে পারে সে ব্যবস্থা কায়েম করা হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো শেষ করে দেওয়া হয়েছে। এ সরকারের পতন ছাড়া কেউ স্বাভাবিকভাবে জীবনযাপন করতে পারবে না।

 
Electronic Paper