ঢাকা, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪ | ৮ বৈশাখ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ভয়াবহ সংকটে পোশাকশিল্প

অনলাইন ডেস্ক
🕐 ১:৩২ অপরাহ্ণ, মে ২৩, ২০২৩

ভয়াবহ সংকটে পোশাকশিল্প

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সৃষ্ট বৈশ্বিক সংকটে দেশের পোশাক রপ্তানির আয় কমছেই। এ অবস্থায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেটে রপ্তানিতে উৎসে কর কমানোর পাশাপাশি মেন মেড ফাইভারে ১০ শতাংশ প্রণোদনার দাবি জানিয়েছে পোশাকশিল্প সংগঠনগুলো।

তথ্যমতে, বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যের সবচেয়ে বড় খাত তৈরি পোশাকশিল্প করোনার পর ঘুরে দাঁড়ালেও ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে ফের পিছিয়ে যাচ্ছে। বারবার গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির কারণে বেড়ে গেছে উৎপাদন খরচ। ফলে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো বলছে, গত মার্চে রপ্তানি আয় কমেছে ১ দশমিক ০৪ শতাংশ, আর এপ্রিলে কমেছে ১৫ দশমিক ৪৮ শতাংশ। এ অবস্থায় বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে অনেক কারখানা। বাড়ছে কর্মী ছাঁটাইয়ের শঙ্কাও।

পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) সভাপতি ফারুক হাসান বলছেন, বর্তমান যে পরিস্থিতি তাতে সামনের দিকে রপ্তানি আরও কমে যাবে। তবে, রপ্তারি বাড়ানোর জন্য আমাদের বড় সুযোগ আছে। সেজন্য আসন্ন ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বাজেটে রপ্তানিতে উৎসে কর বিদ্যমান এক শতাংশ থেকে কমিয়ে দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ এবং ১০ শতাংশ প্রণোদনার দাবি জানিয়েছি।

নিট পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিকেএমইএ’র নির্বাহী সভাপতি মো. হাতেম জানান, সব সংকট একসঙ্গে হাজির হয়েছে। এই সংকটকা দীর্ঘায়িত হতে হতে এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে চলতি বছর অনেক কারখান বন্ধ হয়ে যাবে। ইতোমধ্যে অনেকগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। তাই, বর্তমান পরিস্থিতিতে উৎসে কর দশমিক ২৫ শতাংশ করা জরুরি।

বিশ্লেষকরা বলছেন, তৈরি পোশাকশিল্পকে টিকিয়ে রাখতে বাজেট সহায়তার পাশাপাশি ব্যবসার খরচ কমিয়ে আনতে হবে।

 
Electronic Paper