ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০২৪ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

প্যারিসে ‘ইন্টারন্যাশনাল বেশাক ডে’ উদযাপিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
🕐 ৬:৩৭ অপরাহ্ণ, জুন ০৩, ২০২৩

প্যারিসে ‘ইন্টারন্যাশনাল বেশাক ডে’ উদযাপিত

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ইন্টারন্যাশনাল বুড্ডিষ্ট কাউন্সিল অব ফ্রান্সের আয়োজনে ‘ইন্টারন্যাশনাল বেশাক ডে’ উদযাপিত হয়েছে। স্থানীয় একটি অভিজাত হলরুমে ছিল ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠান, গুণীজন সংবর্ধনা, ধর্মা-লোচনা ও বুদ্ধ কীর্তনসহ দিনব্যাপী নানা আয়োজন।

 

দুই পর্বের অনুষ্ঠানে প্রথম পর্বে ছিল শিলা গ্রহণ, ভিক্ষু সংঘকে পুষ্প দিয়ে পূজা, ধ্বজা পতাকা উত্তোলন, বুদ্ধ স্নান, সংঘদানসহ অষ্টপরিস্কার দান ও ধর্ম দেশনা।

দ্বিতীয় পর্বে সংগঠনের সভাপতি শিবলী বড়ুয়ার সভাপতিত্বে এবং শর্মিষ্টা বড়ুয়া ববির সঞ্চালনায় ছিল ধর্মীয় আলোচনা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বৌদ্ধ ভিক্ষু ড. ভান্তে শরণাপালা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাসের মিশন উপ- প্রধান কাজী এহসানুল হক, সামরিক উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মিজানুর রহমান, শ্রীলংকান দূতাবাসের প্রথম সচিব দানিশা সামিরাসিংহা, অল-ইউরোপীয়ান ‘বাংলাদেশ এসোসিয়েশনের’ মহাসচিব কাজী এনায়েত উল্লাহ, বৌদ্ধ পন্ডিত উ-গুণবর্ধনা পংয়া ভান্তে, ‘ভয়েস অব আমেরিকার’ বাংলা বিভাগের প্রধান শাতরূপা বডুয়া, ফ্রান্স প্রবাসী নিউরো সাইন্টিস্ট ড. উত্তম বডুয়া, ফ্রান্স সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ড. ছন্দা বড়ুয়া।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইন্টারন্যাশনাল বুড্ডিষ্ট কাউন্সিল অব ফ্রান্সের সাধারণ সম্পাদক সনজিত বড়ুয়া, চম্পা বড়ুয়া, মিঠু বড়ুয়া, পিনু বড়ুয়া, সুশীল সিংহ, শিমুল ব বড়ুয়া, সুভাষ বড়ুয়া, সুমেদু বড়ুয়াসহ আরও অনেকে।

এছাড়া বাংলাদেশ, ফ্রান্স, শ্রীলংকা, মায়ানমার, ভিয়েতনাম, লাওস, কম্বোডিয়া, কানাডা এবং আমেরিকার বৌদ্ধ ভিক্ষুরা অংশগ্রহণ করেন।

সাংবাদিকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, এটিএন নিউজের ফ্রান্স প্রতিনিধি দেবেশ বড়ুয়া, সময় টিভির ফ্রান্স প্রতিনিধি লুৎফর রহমান বাবু, ডিবিসি নিউজের ফ্রান্স প্রতিনিধি ইকবাল মোহাম্মদ জাফর।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বৌদ্ধ ধর্মের প্রবর্তক গৌতম বুদ্ধের জীবনাদর্শে উজ্জীবিত হয়ে মানব জগতের কল্যানে আত্ননিয়োগ করার আহ্বান জানান। তারা বলেন, বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে গৌতম বুদ্ধের অমিয় বাণী চর্চা একান্ত অপরিহার্য। অনুষ্ঠানে কীর্তন পরিবেশন করেন শিল্পী জুসি বড়ূয়া।

 
Electronic Paper