ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০২৪ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

জাওয়াদ আরাফ খানের এশিয়া জয়

মোঃ আশরাফুল ইসলাম সুমন
🕐 ৪:০৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৭, ২০২২

জাওয়াদ আরাফ খানের এশিয়া জয়

গ্লোবাল প্ল্যাটফর্ম আইকনস অব এশিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০২২ এর বর্ষসেরা তরুণ উদ্যোক্তা বিভাগে স্বীকৃতি পেয়েছেন জাওয়াদ আরাফ খান। এশিয়ার ৪০টি দেশের ১৫০০ নমিনেশনের মধ্যে এই পুরস্কারটি পান বাংলাদেশি এই তরুণ।

মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) জাওয়াদ আরাফ খান ভারতের নয়া দিল্লিতে ৫ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে অনুষ্ঠিত ইভেন্টে অংশগ্রহণ করে এ সম্মাননা গ্রহণ করেছেন। ২২ বছর বয়সী এই তরুণ নিজেকে এবং নিজের দেশকে উপস্থাপন করেন বিশ্বমঞ্চে।

জাওয়াদ আরাফ একজন বাংলাদেশী তরুণ। স্নাতক করছেন বাংলাদেশের নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস এ। তবে তার পরিচয় এখানেই সীমাবদ্ধ নয়। বর্তমানে আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়াতে কাজ করছেন একটি ল’ফার্মে এডমিন এবং বিজনেস ডেভেলপমেন্ট লীড হিসেবে।

সম্প্রতি যোগ দিয়েছেন আমেরিকার একটি ট্যাক্স কনসাল্টিং কোম্পানীতেও এসিস্ট্যান্ট ম্যানেজার হিসেবে। ইতিপূর্বেও আমেরিকা, ইউরোপ, কানাডা, অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে বিভিন্ন প্রজেক্টে। বাংলাদেশেও সহপ্রতিষ্ঠাতা হিসেবে আছেন ট্রাষ্ট-আস ইন্টারন্যাশনাল এ। এটি একটি অনলাইন ভিত্তিক হোম ডেকর ও লাইফষ্টাইল ব্র‍্যান্ড যা তরুণদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়।

শুধু নিজে কাজ করছেন এমন নয়, দক্ষ জনশক্তি তৈরীতে নিজে অন্যদের সাহায্য ও করতে চান। তাই লিখেছেন বই ‘Let's Start with an E’ যেটি মূলত আপনাকে সফল উদ্যেক্তা হতে সাহায্য করবে। এছাড়াও উদ্যেক্তা ও ব্যবসা সংক্রান্ত আরো বই আসছে বলে জানা গেছে।

দেশ ও দেশের বাইরে সমান তালে অবদান রেখে যাচ্ছেন নিজ দক্ষতায়। তাই তো আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন এশিয়ার সবচেয়ে বড় উদ্যেক্তা ও শিক্ষাবিদদের মিলনমেলা এবং কনফারেন্সে। সেখানেই পেলেন তরুণ হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মাননা।

এই প্রাপ্তিতে তার অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, এভাবে নিজের দেশকে এত বড় মঞ্চে উপস্থাপন করতে পারা বিশাল অর্জন। এর আগেও ছোট বড় এওয়ার্ড পেলেও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এটি দ্বিতীয়। বেশ ভালো লাগছে। এমন সম্মান সামনে আরো বড় কাজের জন্য উৎসাহ যোগায়। দেশের জন্য এমন সম্মান আনতে আরো কাজ করে যাবো ইনশাআল্লাহ।

সামনে কী পরিকল্পনা আছে জানতে চাইলে তিনি জানান, বাংলাদেশের বেকারত্ব সমস্যা হ্রাস করতে চাই। নিজে চাই কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে। এছাড়াও দক্ষতাভিত্তিক কাজ শেখাতে চাই তরুণদের। যাতে তারা শুধু নিজেদের নয় বরং সাথে পরিবার ও দেশের দায়িত্ব নিতে পারে।

 
Electronic Paper