ঢাকা, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ | ৮ আষাঢ় ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাবিতে অটোমেশন প্রক্রিয়ার উদ্বোধন

রাবি প্রতিনিধি
🕐 ৬:৪৫ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২৪

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাবিতে অটোমেশন প্রক্রিয়ার উদ্বোধন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে বুধবার (২৯ মে) অটোমেশন প্রক্রিয়া উদ্বোধন করা হয়। এর মাধ্যমে কোন শিক্ষক কি পরিমাণ ক্লাস নিচ্ছেন, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কেমন, এসব বিষয়গুলো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অ্যাপসের মাধ্যমে সরাসরি পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক আশরাফুল ইসলাম খান।

বুধবার (২৯ মে) বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দপ্তরে আয়োজিত এক সেমিনারে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তরে বিভিন্ন বর্ষ ও সেমিস্টারভিত্তিক ফল প্রকাশে অটোমেশন প্রক্রিয়ার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আলোচকের বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

সেমিনারে অটোমেশন প্রক্রিয়ার বিভিন্ন নিয়মাবলি নিয়ে আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক আশরাফুল ইসলাম খান।

আলোচনায় অধ্যাপক আশরাফুল ইসলাম খান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা অটোমেশন প্রক্রিয়ার আওতাভুক্ত। এক্ষেত্রে শিক্ষার্থীর উপস্থিতি থেকে শুরু করে তাদের ফর্ম ফিল-আপ, ট্যাবুলেশন, ফল প্রকাশ এবং সনদ উত্তোলনের প্রক্রিয়াও অটোমেশন প্রকিয়ায় সম্পন্ন হবে। এক্ষেত্রে পরীক্ষকদের নির্ধারিত সাতদিনের মধ্যে খাতা দেখতে হবে। কেউ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নম্বর জমা না দিলে তার প্যানেলের নম্বর জমাদানের অপশনটি ব্লক হয়ে যাবে। ফলে তাকে নিজে এসে ম্যানুয়ালি তা সম্পন্ন করতে হবে।

তিনি বলেন, পরীক্ষকদের বিল প্রদানের বিষয়টি অটোমেশন প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন হবে। এছাড়া কোন শিক্ষক কি পরিমাণ ক্লাস নিচ্ছেন, শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কেমন, এসব বিষয়গুলো বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এই অ্যাপস থেকে সরাসরি পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন। এসময় তিনি প্রক্রিয়াটির মাঝে কোনো ক্রটি-বিচ্যুতি পরিলক্ষিত হলে সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেন্টার ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দপ্তরকে অবহিত করার আহ্বান জানান তিনি।

সেমিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার এমন কার্যক্রমের জন্য পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দপ্তরকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, আজকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় নতুন এক যুগে পদার্পন করল। এর পেছনে যারা কাজ করে গেছেন আমি তাদের সকলকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। এসময় তিনি প্রক্রিয়াটিকে আরও উন্নত করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।

এই আয়োজনে অন্যদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক হুমায়ুন কবীর, আইসিটি সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক খাদেমুল ইসলাম মোল্যা, বিগত পরিচালক অধ্যাপক বাবুল ইসলাম, অফিস অব দ্য ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক অধ্যাপক ড. আজিজুর রহমান, লিগ্যাল সেলের প্রশাসক ও আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাদিকুল ইসলামসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের অধিকর্তা, শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

 
Electronic Paper