ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪ | ৩ আষাঢ় ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

‘শেখ হাসিনা শিক্ষার্থীদের মর্যাদা দিয়েছেন’

আকিজ মাহমুদ, চবি
🕐 ৯:০০ অপরাহ্ণ, জুন ০৪, ২০২৩

‘শেখ হাসিনা শিক্ষার্থীদের মর্যাদা দিয়েছেন’

বিশ্ববিদ্যালয় আগে চর দখলের লাঠিয়াল তৈরি করা হতো বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে আগে আমরা সারাদিন অস্ত্রের ঝনঝনি আর মারামারিতে ছিলাম। শিক্ষার্থীদের মর্যাদ শেখ হাসিনা আসার পর দেওয়া হয়েছে।

 

রোববার (৪ জুন) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সমাজবিজ্ঞান অনুষদ মিলনায়তনে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু, মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথি বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

ডা. দীপু মনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের যে র‍্যাংকিয়ের কথা বলা হয়। এরজন্য অনেকগুলো ফ্যাক্টর আছে। বিগত সময়ে এগুলোতে কেউ নজর দেন নাই।

তিনি বলেন, আমরা একটু বিস্মৃত জাতি কিন্তু সব ভুলে গেলে চলবে না। ২০০১-৬ পর্যন্ত এবং ৯৬ এর আগের ২১ বছরের ইতিহাস আমাদের জানতে হবে। তথাকথিত গণতন্ত্রেরকালে আমরা কেমন ছিলাম, দুর্বৃত্তায়নের রাজনীতি ও হাওয়া ভবন ও খোয়াভবন কাদের হাত ধরে এসেছে তাদের সম্পর্কে আমাদের জানতে হবে।

সেরা ছাত্র মানেই সেরা শিক্ষক নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় আজকে জ্ঞান ও সৃজনশীলতার জায়গা। আজকের ছাত্রই আগামী দিনের শিক্ষক। ভালো ছাত্র মানেই ভালো শিক্ষক নয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এক শিক্ষকের মন্তব্যের প্রাসঙ্গিকতায় তিনি বলেন, গবেষণার প্রচার হবে সাইটেশনের মাধ্যমে। যদি গবেষণাপত্র ভালো হয় তবে তা ভালো জার্নালে প্রকাশিত হবে। সেই গবেষণাপত্রের অটোমেটিক্যালি প্রচার হবে। গবেষণাপত্রের প্রচারের জন্য মাইকিং করতে হবে না। আর গবেষণাপত্র যদি মান সম্মত না হয় তা প্রকাশিতও হবে না। তাই আমাদের মান সম্মত গবেষণাপত্র প্রকাশ করতে হবে।

এখন শিক্ষকরা চাকরি করেন মাত্র, শিক্ষকতা নয় উল্লেখ করে সেমিনারের মূখ্য আলোচক ড. মুনতাসীর মামুন বলেন, আজকাল শিক্ষকরা রাজনৈতিক নেতাদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হলো শিক্ষকরা হতে হবে ছাত্রদের জন্য আদর্শ কিন্তু শিক্ষকরা সামান্য পদের জন্য টাকার জন্য বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বিরোধী কাজ করছেন৷

তিনি বলেন, আমরা দেখি যে আজকে বাংলাদেশে যতগুলা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় আছে তার কোনোটাতেই বাংলা বিভাগ ও ইতিহাস বিভাগ নেই। এটাকে দেশদ্রোহিতা বলে আমি মনে করি। আমাদের সবার মন বঙ্গবন্ধুর প্রতি প্রেম উতলে পড়ে ঠিকই কিন্তু কোনো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়েই কলা ও মানববিদ্যা বিভাগের কোনো শিক্ষক বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার বিষয়ে আজ পর্যন্ত কোনো গবেষণা হতে আমি দেখিনি।

এদিন দুপুর ১২টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় সেমিনারের আনুষ্ঠানিকতা। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. সুকান্ত ভট্টাচার্য ও ড. নাজনীন নাহার ইসলামের সঞ্চালনায় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় এ সেমিনার। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন চবি প্রক্টর ড. নুরুল আজীম শিকদার।

বিশেষ অতিথি হিসেবে এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক বেনু কুমার দে, কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাহবুবুল হক ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মুস্তাফিজুর রহমান সিদ্দিকী।

 
Electronic Paper