ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০২৪ | ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী সড়ক ৪ লেনের প্রস্তাব

মু. ওয়াহিদুর রহমান মুরাদ, লক্ষ্মীপুর
🕐 ৭:১১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৪, ২০২৪

লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী সড়ক ৪ লেনের প্রস্তাব

নোয়াখালী থেকে লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পর্যন্ত সড়কটি চার লেনের প্রস্তাব দিয়েছেন সংসদ সদস্য (এমপি) গোলাম ফারুক পিংকু। এরমধ্যে প্রথম পর্যায়ে বেগমগঞ্জ থেকে লক্ষ্মীপুর বাস টার্মিনাল পর্যন্ত সড়কটি চার লেনের জন্য চাহিদাপত্র জমা দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (৩ মার্চ) সকালে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক এমপির কাছে এ চাহিদাপত্র জমা দেন তিনি।

জাতীয় সংসদ ভবনের ক্যাবিনেট কক্ষে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভা হয়। এতে লক্ষ্মীপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে সভায় অংশ নেন। বিকেলে পিংকু প্রতিবেদককে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সভায় উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য আবু জাহির, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন, কুমিল্লা-১১ আসনের সংসদ সদস্য মজিবুল হক, কুমিল্লা-৩ আসনের সংসদ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম, নারায়ণগঞ্জ -৩ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল কায়সার ও চট্টগ্রাম-১৬ আসনের সংসদ সদস্য মজিবুর রহমানসহ অনেকে।

গোলাম ফারুক পিংকু এমপি বলেন, আমি লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী সড়কের গুরুত্ব তুলে ধরেছি। প্রথম পর্যায়ে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ থেকে লক্ষ্মীপুর বাস টার্মিনাল পর্যন্ত সড়কটি চার লেনে উন্নিত করার জন্য চাহিদাপত্র জমা দিয়েছি। আশা করি এ অঞ্চলের ভাগ্যোন্নয়নে মন্ত্রণালয় বিষয়টি বিবেচনায় নেবেন।

প্রসঙ্গত, মেঘনা নদী হয়ে বরিশাল-ভোলা-লক্ষ্মীপুর নৌ-রুট চট্টগ্রাম ও সিলেটসহ দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার সহজ যোগাযোগ মাধ্যম। সাম্প্রতিক সময়ে লক্ষ্মীপুর ফেরিঘাট থেকে শহরের বাসটার্মিনাল পর্যন্ত বরিশাল-ভোলা-লক্ষ্মীপুর জাতীয় সড়ক প্রশস্তকরণ করা হয়। এ রুটের যাত্রীরা এর সুফল ভোগ করছে। কিন্তু বাস টার্মিনাল থেকে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ পর্যন্ত রাস্তাটি প্রশস্ত নয়। এছাড়া শরীয়তপুর থেকে হরিণা ফেরিঘাট হয়ে অধিকাংশ যানবাহন এবং যাত্রীরা রায়পুর-লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী সড়কটি ব্যবহার করে। রাস্তাটি প্রশস্ত না হওয়ায় অধিকাংশ সময় দুর্ঘটনা ঘটে। রায়পুর-লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী সড়কটি ২৪ ঘণ্টায় ব্যস্ত থাকে। এতে এ সড়কটি প্রশস্তকরণ অধিক গুরুত্বপূর্ণ। সড়ক প্রশস্তকরণ হলে এ রুটে দুর্ঘটনা কমে যাবে। এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক বিপ্লব ঘটবে।

 
Electronic Paper