ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪ | ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ছেলেকে হাত-পা বেঁধে মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক
🕐 ১২:১৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ০১, ২০২৩

ছেলেকে হাত-পা বেঁধে মুক্তিযোদ্ধাকে হত্যা

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার ধর্মগঞ্জে আব্দুল হালিম নামের এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকে শ্বাসরোধে হত্যার পর তার ঘর থেকে দুর্বৃত্তরা ২০ লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় তার ছেলে মো. মাসুদকে হাত-পা ও চোখ বেঁধে মারধর করে ফেলে রাখে। মঙ্গলবার (৩১ জানুয়ারি) রাত ১১টা থেকে ২টার মধ্যে সদর উপজেলার এনায়েতনগর ইউনিয়নের মাওলা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম (৭২) মাওলাবাজার এলাকার মৃত মহব্বত আলীর ছেলে।

 

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৭টায় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের (ভিক্টোরিয়া) মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের ছেলে হাফেজ মো. মাসুদ জানান, পরিবারের লোকজন মঙ্গলবার আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে যায়। রাতে তার বাবা নিজ রুমে ও সে তার রুমে ঘুমিয়ে ছিলেন। রাত প্রায় ১১টায় ঘুমন্ত অবস্থায় তিনজন লোক তার হাত-পা ও চোখ বেঁধে মারধর করেন। তার বাবার রুমে কয়জন ছিল তা তার জানা নেই। দুর্বৃত্তরা রাত দুইটায় জমি বিক্রির ২০ লাখের বেশি টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে চলে যায়। দুর্বৃত্তরা কীভাবে বাসায় ঢুকেছে তা বলতে পারেন না মাসুদ।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার এসআই হুমায়ুন কবির জানান, ময়না তদন্ত প্রতিবেদনে জানা যাবে মৃত্যুর কারণ। তবে যে ঘরে ঘটনা ঘটেছে সেই ঘরে বাইরে থেকে ভিতরে প্রবেশ করার কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। ঘরটিতে চারটি সিসিটিভি ক্যামেরা রয়েছে। ক্যামেরার মেমোরি কার্ড খুলে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ রিজাউল হক বলেন, নিহতের এক ছেলে ও দুই মেয়ে। মেয়েরা স্বামীর বাড়ি থাকেন। ছেলের পরিবারের সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম নিজ বাড়িতে থাকেন। ঘটনার সময় ছেলে ও আব্দুল হালিম ছাড়া কেউ বাড়িতে ছিলেন না। ঘটনাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত চলছে।

 
Electronic Paper