ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ | ৬ বৈশাখ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

আগুনে নিহত ২৭ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে

অনলাইন ডেস্ক
🕐 ২:৪৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ০১, ২০২৪

আগুনে নিহত ২৭ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে

রাজধানীর বেইলি রোডের বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ২৭ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

 

শুক্রবার (১ মার্চ) সকালে ঢাকা মেডিকেলের সামনে থাকা ঢাকা জেলা প্রশাসনের তথ্য ও সহায়তা কেন্দ্র থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে জানানো হয়, এখন পর্যন্ত ৩৫টি মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত নিহত ২৭ জনের পরিচয় শনাক্ত করা হয়েছে।

শনাক্ত ২৭ জনের পরিচয়-
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মৃত মো. জহিরুল ইসলামের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (২৫), ঢাকার বংশালের মো. মোসলেমের ছেলে মো. নুরুল ইসলাম (৩২), ঢাকার প্রাণ নাথ রায়ের মেয়ে পপি রায় (৩৩), ঢাকার যাত্রাবাড়ির শিপন পোদ্দারের মেয়ে সম্পূর্ণা পোদ্দার (১২), কুমিল্লার এম এ এইচ গোলাম মহিউদ্দিনের মেয়ে জান্নাতিন তাজরিন, ঢাকার পুরান পল্টনের মো. আলীর মেয়ে নাজিয়া আক্তার (৩১), ঢাকার পুরান পল্টনের সায়েক আহমেদের ছেলে আরহান মোস্তাক আহমেদ (৪৬), ঢাকার মতিঝিলের কবির খানের ছোট মেয়ে মাইশা কবির মাহি (২১), কবির খানের বড় মেয়ে মেহেরা কবির দোলা (২৯), ঢাকার মতিঝিলের জয়ন্ত কুমার পোদ্দারের স্ত্রী পম্পা সাহা (৪৭), মাদারীপুরের জাকির শিকদারের ছেলে মো. জিহাদ হোসেন (২২), মৌলভীবাজারের ফজলুর রহমানে ছেলে আতাউর রহমান শামীম (৬৩), যশোরের মো. কবির হোসেনের ছেলে মো কামরুল হাবিব রকি (২০), টাঙ্গাইলের মোয়াজ্জেম মিয়ার ছেলে মেহেদী হাসান (২৭), কুমিল্লার লালমাইয়ের কোরবান আলীর মেয়ে ফৌজিয়া আফরিন রিয়া (২২), কুমিল্লা সদরের আব্দুল কুদ্দুসের মেয়ে নুসরাত জাহান মিশু (১৯), ঢাকার হাতিরঝিলের সৈয়দ মোবারকের মেয়ে ফাতিমাতুজ জোহরা (১৬), মোবারক হোসেনের ছেলের সৈয়দ আবুদল্লাহ (৮), একই পরিবারের মুন্সি বাহারউদ্দিনের মেয়ে স্বপ্না আক্তার, মুন্সিগঞ্জের মো আওলাদ হোসেনের মেয়ে জারিম তাসনিম প্রিয়তি (২০), নারায়ণগঞ্জের মো. আমজাদ হোসেনের ছেলে শান্ত হোসেন (২৩), ভোলার মইনুল হকের ছেলে দিদারুল হক (২৩), ঢাকা হাতিরঝিলের সৈয়দ আবুল কাশেমের ছেলে সৈয়দ মোবারক (৪৮), হবিগঞ্জর উত্তর কুমার রায়ের স্ত্রী রুবি রায় (৪৮), একই পরিবারের প্রিয়াংকা রায় (১৮), ঝালকাঠির তুষার হাওয়ালদার (২৬) এবং ঢাকা শান্তিনগরের ইসমাইল গাজীর ছেলে জুয়েল গাজী (৩০)।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৫০ মিনিটের দিকে ভবনটির দ্বিতীয় তলায় আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১৩টি ইউনিটের চেষ্টায় রাত ১১টা ৫০ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ভবনের ভিতর থেকে ৭৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহতদের কেউই শঙ্কামুক্ত নন।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (প্রশিক্ষণ, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) লেফটেন্যান্ট কর্নেল রেজাউল করিম গণমাধ্যমকে বলেন, একটিমাত্র সিঁড়ি থাকা অগ্নিনিরাপত্তা প্রোটোকলের একটি বড় ত্রুটি। ভবনটিতে বেশ কয়েকটি রেস্তোরাঁ ছিল এবং সিঁড়ির পাশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে ছিল গ্যাস সিলিন্ডার। যার কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়েছে।

এদিকে, নিহতদের দাফনের জন্য ২৫ হাজার টাকা করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মহিববুর রহমান।

তিনি বলেন, আগুনের ঘটনা সরকারের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। দ্রুততম সময়ে দোষীদের বিচারের আওতায় আনা হবে।

ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। শেখ হাসিনা তার শোকবার্তায় নিহতদের মাগফেরাত কামনার পাশাপাশি বেঁচে যাওয়াদের দ্রুত চিকিৎসা প্রদানের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তাৎক্ষণিক নির্দেশনা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৮০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়।

 

 
Electronic Paper