ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নাটোরে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে অপহরণের পর মারধর, গ্রেফতার ২

নাটোর প্রতিনিধি
🕐 ৮:২৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৬, ২০২৪

নাটোরে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থীকে অপহরণের পর মারধর, গ্রেফতার ২

নাটোরে জেলা নির্বাচন অফিসের সামনে থেকে সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরণের পর মারধরের ঘটনা ঘটেছে। দেলোয়ার হোসেনকে গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। এখনো তিনি চিকিৎসাধিন আছেন। তবে তিনি আশংকামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

অপহরণ ও মারধরের ঘটনায় একমাত্র প্রতিপক্ষ চেয়ারম্যান প্রার্থী লুৎফুল হাবীব রুবেল ও তার সমর্থকদের দায়ী করছেন দেলোয়ার হোসেনের পরিবার।

লুৎফুল হাবীব‌ রুবেল উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শেরকোল ইউনিয়ন পরিষদের সদ্য পদত্যাগ করা চেয়ারম্যান। রুবেল তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের শ্যালক।

ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন লুৎফুল হাবীব। গত রোববার পর্যন্ত তার প্রতিদ্বন্দ্বী কেউ মনোনয়নপত্র দাখিল করেননি। সোমবার সকালে অনলাইনে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে শহরের স্টেশন বাজারে আসেন দেলোয়ার। দেলোয়ারের সঙ্গে দেখা করতে আসলে পথে তার বড় ভাই ও কলম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক এবং আওয়ামী লীগ নেতা আলাউদ্দিন মুন্সিকে গাড়িতে তুলে নিয়ে গিয়ে বাড়িতে পৌঁছে দেয় রুবেলের লোকজন।

অনলাইনে আবেদনের পর সেখান থেকে ফিরে জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্রের প্রতিলিপি জমা দিতে আসেন দেলোয়ার হোসেন। সেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা রুবেলের লোকজন তাকে মারধর করে কালো মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে গিয়ে বেধরক মারপিট করে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। সেখান থেকে পরিবারের লোকজন প্রথমে তাকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে লুৎফুল হাবীব‌ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অপহরণ ও হামলার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।

আহত দোলোয়ার হোসেনের ভাই এমদাদুল হক জানান, নির্বাচন অফিসের সামনে থেকে তার ভাই দেলোয়ারকে তুলে নিয়ে যায় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের শ্যালক লুৎফুল হাবীব‌ রুবেলের বাহিনীর মোহন ও তার লোকজন। সেখান থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে দেলোয়ারকে ব্যাপক মারধর করে তাদের বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে যায়। অবস্থা খারাপ দেখে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (রামেকে) রেফার্ড করেন।

রামেক হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগের প্রধান ডা. মো. আ হ ম মোস্তফা কামাল বলেন, আহত দেলোয়ার হোসেনকে আইসিসইউ নেবার পর মঙ্গলবার দুপুরে বেডে আনা হয়েছে। তিনি এখন আশংঙ্কা মুক্ত।

নাটোরের পুলিশ সুপার তারিকুল ইসলাম বলেন, সোমরার রাতে ভিকটিমের ভাই মজিবর রহমান বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। সিসিটিভি ফুটেজ এনালাইসিস করে রাতেই অভিযান চালিয়ে বাবু ও সুমন নামে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

অপহরণের কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটির সন্ধান পাওয়া গেল কিনা জানতে চাইলে পুলিশ সুপার বলেন, ‘এখনো মাইক্রোবাসটিকে আমরা জব্দ করতে পারিনি। তবে লোকোমুখে শোনা যাচ্ছে, গাড়িটি রুবেলের (প্রতিমন্ত্রীর শ্যালক ও একমাত্র প্রতিপক্ষ পার্থী)। গাড়িটি উদ্ধার করতে পারলে আমরা সত্যতা যাচাই করতে পারবো।’

 
Electronic Paper