ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪ | ২ শ্রাবণ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

যুবদলের নতুন নেতৃত্বকে স্বাগত জানিয়ে নেতাকর্মীদের মিছিল

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
🕐 ৯:০৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৯, ২০২৪

যুবদলের নতুন নেতৃত্বকে স্বাগত জানিয়ে নেতাকর্মীদের মিছিল

যুবদলের নতুন কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে মিছিল করেছে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। আজ মঙ্গলবার (৯ জুলাই) বিকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সংগঠনটির নেতাকর্র্মীরা এ মিছিল বের করে। এসময় তারা স্লোগান ‘মুন্না-নয়ন পরিষদ, সবার সেরা পরিষদ’। এছাড়া বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানের নামে স্লোগান দিতে থাকেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ্য থাকায় যুবদলের নতুন নেতৃত্ব ফুলেল শুভেচ্ছা ও মিষ্টি বিতরণ থেকে বিরত থেকেছেন বলে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানা গেছে।

জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর যুবদল উত্তরের আহ্বায়ক শরিফ উদ্দিন জুয়েল দৈনিক খোলা কাগজকে বলেন, আন্দোলন-সংগ্রামে রাজপথে যারা পরিক্ষীত সৈনিক দেশনায়ক তারেক রহমান তাদের হাতেই যুবদলের নেতৃত্ব তুলে দিয়েছেন। আগামী দিনে এই নেতৃত্ব আরও শক্তিশালী হয়ে অবৈধ শেখ হাসিনা সরকারের পতন ঘটাবে।

এছাড়া ঢাকা মহানগর যুবদল দক্ষিণের সদস্য রবিউল ইসলাম নয়ন খোলা কাগজকে বলেন, যুবদলের নতুন কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে সারাদেশের শত শত নেতাকর্মী আজকে বৃষ্টি উপেক্ষা করে নয়াপল্টনে হাজির হয়েছেন। তারুণ্য নির্ভর এই কমিটির নেতৃত্বে সারাদেশের যুব সমাজের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে এই ফ্যাসিষ্ট শেখ হাসিনা সরকারের বিদায় ঘন্টা বাজাবে।

বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের আংশিক কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করা হয়। নতুন কমিটিতে আব্দুল মোনায়েম মুন্নাকে সভাপতি এবং নুরুল ইসলাম নয়নকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। এ ছাড়া রেজাউল করিম পল সিনিয়র সহসভাপতি, বিল্লাল হোসেন তারেক ১নং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, কামরুজ্জামান জুয়েল সাংগঠনিক সম্পাদক এবং নুরুল ইসলাম সোহেলকে দপ্তর সম্পাদক করা হয়েছে।

নবগঠিত যুবদলের নেতৃবৃন্দকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, আমরা আশা করব, নতুন কমিটির নেতৃত্বে সংগঠন আরও শক্তিশালী হবে এবং এই সরকারকে পরাজিত করতে ভূমিকা রাখবে।

গত ১৩ জুন যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়। ওই কমিটির সভাপতি ছিলেন সুলতান সালাউদ্দিন টুকু এবং সাধারণ সম্পাদক ছিলেন আবদুল মোনায়েম মুন্না।

 
Electronic Paper