ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ধর্ষণে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি
🕐 ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০২৪

ধর্ষণে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে ধর্ষণের ঘটনায় এক দৃষ্টি প্রতিবন্ধী কিশোরীর (১৪) ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে ওই কিশোরীকে অজ্ঞাত স্থানে সরিয়ে নিয়েছেন অভিযুক্ত পরিবার এমনটিই অভিযোগ কিশোরীর মায়ের। অভিযুক্ত অনিক(১৮) উপজেলার জামির্ত্তা ইউনিয়নের বাবুলের ছেলে। এঘটনায় ভিকটিমের মা মঙ্গলবার (৯ জুলাই) থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

ভিকটিমের পরিবার ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, গত ২০ মার্চ প্রতিবন্ধী কিশোরীর বাড়িতে কেউ না থাকায় বাড়িতে আসে প্রতিবেশী অনিক। ঐদিন বিকেলে অনিক ঘরে প্রবেশ করে ভিকটিমের মুখে গামছা পেঁচিয়ে জোর করে ধর্ষণ করে। ধর্ষণ শেষে ভিকটিমের গলায় দা ধরে বিষয়ে কাউকে বলতে নিষেধ করেন। ভিকটিম ভয়ে বিষয়টি কাউকে জানায়নি। এদিকে ধর্ষনের ফলে ভিকটিম অন্তস্বত্ত্বা হয়ে পড়ে। সে বর্তমানে ৫ মাসের অন্তসত্ত্বা। সম্প্রতি বিষয়টি ভুক্তভোগী কিশোরীর মা জানতে পারলে ওই কিশোরীকে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে কিশোরী ঘটনার বর্ণনা করেন। ঘটনাটি অভিযুক্ত অনিকের পরিবারকে জানালে তারা বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মা ও মেয়েকে হত্যার হুমকি দেয়।

ভিকটিমের মা বলেন, গত মঙ্গলবার (৮ জুলাই) অভিযুক্ত অনিকের খালা ও খালু তার বাড়িতে গিয়ে জীবন নাশের হুমকি প্রদান করে ১০০ টাকা মূল্যের ৩টি নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে জোরপূর্বক টিপসই নেয়। মেয়ের পেটের বাচ্চা এবরশন করার জন্য হাসপাতালে নেওয়ার কথা বলে জোর করে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। এখনো মেয়েকে আমার কাছে ফেরত দেয় নাই। আমার মেয়ে জীবিত আছে নাকি মৃত, কিছুই জানিনা।

এই বিষয়ে অভিযুক্ত পরিবারের সাথে কথা বলতে তাদের বাড়িতে গেলে কাউকে পাওয়া যায়নি।

সিঙ্গাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ জিয়ারুল ইসলাম বলেন, এঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 
Electronic Paper