ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪ | ২ শ্রাবণ ১৪৩১

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

মিষ্টি কুমড়ার ভালো দাম পেয়ে খুশি কাউনিয়ার কৃষকরা

কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি
🕐 ৮:০৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ০১, ২০২৪

মিষ্টি কুমড়ার ভালো দাম পেয়ে খুশি কাউনিয়ার কৃষকরা

কাউনিয়ার তিস্তা চরের কীটনাশক মুক্ত মিষ্টি কুমড়া রফতানি হচ্ছে দেশের বিভিন্ন জেলায়। তিস্তার চরে কুমড়া চাষ করে ভাল দাম পেয়ে বেজায় খুশি তারা। তিস্তার জেগে উঠা চরে কুমড়াসহ বিভিন্ন সবজি চাষ করে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষীরা সাবলম্বী হচ্ছেন।

সরেজমিনে উপজেলার বালাপাড়া ইউনিয়নের গাজিরহাট এলাকায় শহীদ মুক্তিযোদ্ধা মোফাজ্জল হোসেন এর বাড়ির সামনে গিয়ে দেখা যায়, ট্রাকে মিষ্টি কুমড়া বোঝাই করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায়। কাউনিয়ায় কীটনাশক মুক্ত ও সুস্বাদু কুমড়া চাষ করায় এর চাহিদা অনেক বেশী। কীটনাশক মুক্ত সবজি চাষে ইতোমধ্যে সুনাম অর্জন করেছেন তিস্তা চরের কৃষকরা।

কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, তিস্তার চরে চলতি মৌসুমে নির্ধারিত চাষীসহ অন্যান্য চাষীদের উৎপাদিত কুমড়া প্রায় ৩৫০ টন। যা স্থানীয় চাহিদা পূরণ করে অন্য জেলায় রফতানি হচ্ছে। কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, কৃষি বিভাগের উদ্যোগে তিস্তার চরে মিষ্টি কুমড়া শাক, সবজিসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ করা হয়েছে এবং এলাকার যুবকরাও চাষাবাদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে অর্থ উপার্জন করে নিজেদের চাহিদা মিটাচ্ছেন।

স্থানীয় চাষী নজরুল জানান, তার ২৫ শতক জমিতে ১২ থেকে ১৫টন পর্যন্ত কুমড়া ফলেছে। তিনি ১৫ টাকা থেকে শুরু করে বর্তমানে ২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছে। এছাড়াও তিনিসহ বেশ কয়েকজন কুমড়া কিনে বিভিন্ন বিভিন্ন জেলায় বেশী দামে বিক্রি করছেন।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ শাহনাজ পারভীন জানান, পুষ্টি চাহিদা পুরণ ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে অনন্য ভূমিকা রাখছেন তিস্তা চরের কৃষক। সরকারী সহায়তায় উপজেলায় চরাঞ্চলের প্রায় ৬০ একর জমিতে কুমড়া চাষ করা হলেও চাষীদের নিজের চেষ্টায় সাথী ফসল সহ কুমড়া চাষ হয়েছে অনেক বেশী। চরের ২০০জন চাষীকে কুমড়া চাষে কৃষি প্রনোদনা দেওয়া হয়েছে।

 
Electronic Paper