রাগ নিয়ন্ত্রণ

ঢাকা, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০ | ১১ মাঘ ১৪২৬

রাগ নিয়ন্ত্রণ

তুহিন তালুকদার ২:১৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২০

print
রাগ নিয়ন্ত্রণ

একটা ছেলে ছিল, তোমাদেরই বয়সী। খুব রাগী ছিল সে। রেগে গেলে আশেপাশের লোকজনদের যা মুখে আসত, তাই বলে দিত। তার ব্যবহারে সবাই মনে খুব কষ্ট পেত।

একদিন তার বাবা তাকে ডাকলেন। তাকে এক থলে পেরেক এবং একটা হাতুরি দিয়ে বললেন, ‘যখনই তোমার রাগ হবে, তুমি কাউকে কিছু না বলে আমাদের উঠানের কাঠের বেড়ায় একটা করে পেরেক ঠুকে দেবে।’

প্রথম কয়েকদিনে ছেলেটা এত পরিমাণে পেরেক ঠুকল যে, থলের অর্ধেক পেরেক শেষ হয়ে গেল। কিন্তু দিন যেতে যেতে রাগের উপর তার নিয়ন্ত্রণ বাড়ল। তাই পেরেক ঠোকার পরিমাণ কমে এলো। শেষে একটা সময় এলো, যখন সে আর রাগেই না।

এবার তার বাবা বললেন, ‘এখন যেহেতু তুমি তোমার রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারো, প্রতিদিন বেড়া থেকে একটা করে পেরেক তুলে ফেলতে হবে।’

এভাবে প্রতিদিন একটা করে পেরেক তুলতে তুলতে একদিন সবগুলো পেরেক তোলা শেষ হয়ে গেল। সেদিন বাবা বললেন, ‘খুব ভাল কাজ করেছো তুমি। কিন্তু পেরেক তুলে ফেলার পরও বেড়ার গায়ে গর্ত দেখতে পাচ্ছো? বেড়াটা আর কখনো আগের মতো হবে না। তেমনি রাগের মাথায় কাউকে কিছু বললে, লোকের মনে দাগটা থেকে যায়। সেটা কিছুতেই দূর হয় না।’

ছেলেটা বুঝল, রাগ হচ্ছে ছুরির আঘাতের মত। আঘাত সেরেও যেতে পারে, কিন্তু তার দাগটা রয়ে যায়।