হুমায়ূন আহমেদ

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

হুমায়ূন আহমেদ

লুৎফর রহমান রিটন ১:৩৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৬, ২০১৯

print
হুমায়ূন আহমেদ

তার ছিলো এক জাদুর কলম সেই কলমে সে-
এই দেখো না কত্তো রকম কাণ্ড করেছে!
‘বোতল ভূত’-এর ‘একি কাণ্ড!’ কাণ্ড ভয়ংকর
একের পর এক কাণ্ড ঘটায় নিপূণ জাদুকর।
জাদুকরের কীর্তি দেখে আমরা অবাক হই
‘পুতুল’ নামের বই পড়েছো? মন খারাপের বই।
বলে বলে শেষ হবে না তার যে কতো গুণ
এই জাদুকর সবার প্রিয়। নামটা হুমায়ূন ।
তার কলমে ঝরতো কেবল মুক্তো রাশি রাশি
মুক্তোগুলোয় কান্না ছিলো, মুক্তোগুলোয় হাসি।
তার লেখা বই, বইয়ের পাতায়, অক্ষরে অক্ষরে
মমতা আর মায়ার ভুবন। মুক্তো ঝরে পড়ে।

যে গল্পটাই লিখতো সেটাই হতো পাঠক-প্রিয়

অলৌকিক এক গল্প কথক! সে অতুলনীয়।
তার ছিলো খুব বৃষ্টি বিলাস, ভিজতো সে বৃষ্টিতে
মুগ্ধ এবং আকুল হতো মেঘের সিম্ফনিতে!
তার আকাশে মেঘের সাথে রোদের লুকোচুরি
তার আকাশে উড়তো পাখি, নানান রঙের ঘুড়ি।
রবীন্দ্রনাথ আসতো নেমে জোছনা ভরা রাতে
চাঁদের সাথে মিতালি তার সখ্য তারার সাথে।
দেখলে তাকে উঠতো হেসে বৃক্ষ-লতা-ঘাস
এসব ঘিরে নির্মিত তার গল্প-উপন্যাস।
বিচিত্র সব মানুষ ছিলো তার কাহিনি ঘিরে
মানুষেরাই তার রচনায় আসতো ফিরে ফিরে।

এই প্রকৃতি এই মানুষের স্বপ্ন এবং আশা
ওদের জন্যে হুমায়ূনের বিপুল ভালোবাসা...
পূর্ণিমারই আলোর প্লাবন জোছনা রাতের বনে
হচ্ছেটা কি ‘বোকা রাজার সোনার সিংহাসন’-এ?
‘এংগা বেংগা চেংগা’রা সব ধিতাং ধিতাং নাচে
অচিন দেশে ‘নীল মানুষ’ আর ‘কানী ডাইনী’ আছে।
‘ভূত মন্ত্র’ ‘মজার ভূত’ আর নানান রকম ভূত
কাণ্ড করে মজার মজার কাণ্ড কী অদ্ভুত!

‘ভূত ভূতং (আর) ভূতৌ’ লিখে বাঁধালো শোরগোল
‘আমার ছেলেবেলা’য় দেখি শৈশব-কল্লোল!
পিঁপড়ের নাম ‘পিপলি বেগম’ বাহ্ কী চমৎকার!
মজার কাণ্ড-কীর্তিতে তার সাজানো সংসার।
মায়াবতী রূপবতী রাজকন্যের জয়
‘বনের রাজা’ সিংহ মামা, শেয়াল মোটেও নয়!
হুমায়ূনের উড়ালপঙ্খী নীলাভ জোছনায়
‘ব্যাঙ কন্যা এলেং’ সবার বন্ধু হতে চায়।