দূরত্ব

ঢাকা, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

তোমাদের সিনেমা

দূরত্ব

সরোজ ভৌমিক ১১:০৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৯, ২০১৯

print
দূরত্ব

এগারো বছরের একমাত্র ছেলে পুতুলকে বাবা-মা কেউই ঠিকমতো সময় দিতে পারে না। বাসার কাজের বুয়াই ওর দেখাশোনা করে। বই পড়তে ছবি আঁকতে আর কম্পিউটারে গেম খেলতে ওর ভালো লাগে।

এক সকালে জানালা দিয়ে বাইরে তাকাতেই বানরের খেলা দেখতে বেরিয়ে আসে। এরপর সে হাঁটতে হাঁটতে একটা পার্কে গিয়ে বসে। সেখানে আগে থেকেই ওর বয়সী আরেকটা ছেলে বসেছিল। এরপর ওদের মধ্যে বন্ধুত্ব হয়ে যায়। ছেলেটা রেল স্টেশনে থাকে তার একমাত্র বোনকে নিয়ে।

ওদের মধ্যে দারুণ সখ্য গড়ে ওঠে। ওরা ট্রেনে করে ময়মনসিংহে যায়। সেখানেই ট্রেনে এক গানওয়ালার সঙ্গে দেখা হয় যে গান গায় আর দাঁতের মাজন বিক্রি করে সেই সঙ্গে কান পাকা মলম কর্ণসুন্দর বিক্রি করে।

পুতুল নতুন বন্ধুদের কাছ থেকে একটা টাকা চেয়ে নিয়ে এক কৌটা কর্ণসুন্দর কিনলে সেই বিক্রেতা যে কি খুশি হয় তা বলার নয়। ওদিকে একমাত্র ছেলেকে না পেয়ে বাবা-মা দিশেহারা হয়ে যায়। এক হুজুর ডাকে। তারপর জানতে হলে তোমাকে ছবিটা দেখতে হবে।