শিশুর প্রাণ বাঁচাল কুকুর

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ | ৭ বৈশাখ ১৪২৮

শিশুর প্রাণ বাঁচাল কুকুর

ডেস্ক রিপোর্ট ১১:১০ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ০২, ২০২১

print
শিশুর প্রাণ বাঁচাল কুকুর

চোখের সামনে দেখা যাচ্ছিল। নিজের ছেলে ডুবে যাচ্ছে নদীতে। আর যেন এক মুহূর্ত বাকি। সব শেষ হয়ে যাচ্ছে। আর সেই দৃশ্য বাবা দাঁড়িয়ে দেখছেন। সিদ্ধান্ত নিলেন পানিতে নিজেই ঝাঁপ দেবেন। ঠিক তখনই নজরে আসে, তার পোষ্য কুকুর ‘ম্যাক্স’ অন্য কা- করে ফেলেছে। অসহায় বাবা তীরে দাঁড়িয়ে দেখছেন তার পোষা কুকুর সাঁতরে পৌঁছে গেছে ডুবন্ত ছেলেটার কাছে। ছেলেটির বাবা চিৎকার করে ছেলেটিকে বোঝালেন অল্প ভেসে থাকার জন্য। কারণ সেই মুহূর্তে লাইফগার্ড হিসেবে একমাত্র তারই পোষা কুকুর। নাটকীয়ভাবে সেই কুকুর লাইফ জ্যাকেট কামড়ে ছেলেটিকে নিয়ে আসছে তীরের দিকে।

বহু মানুষ সাক্ষী থাকলেন এই বিরল ঘটনার। এ ঘটিনাটি ঘটেছে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার নরল্যাং পোর্টে। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, কুকুর বরাবরই প্রভুভক্ত প্রাণী। নিজের মালিকের জন্য প্রাণটুকুও দিতে দ্বিধা করে না। আর সেদিনের সেই ঘটনার সময় কুকুর ‘ম্যাক্স’ এটা নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছিল তার মালিকের প্রাণপ্রিয় ছেলে ডুবে যাচ্ছে। ম্যাক্সের মাথায় হয়তো এটাই কাজ করছিল। তাই পানিতে ঝাঁপ দিয়ে সে পৌঁছে যায় ছেলেটাকে উদ্ধার করতে।

ছেলেটিকে বাঁচিয়ে আনার পর এক অন্যরকম তৃপ্তি ‘ম্যাক্স’-এর চোখে। লেজ নেড়ে সেই তৃপ্তির জানান দিচ্ছিল সে। আর আশপাশের লোকের প্রশংসা বাক্যও উপভোগ করছিল ম্যাক্স। ম্যাক্সের মালিক রব অসবর্ন জানালেন, তিনি আনন্দিত, কৃতজ্ঞ। বুলডগ প্রজাতির কুকুররা হিংস্র হয়। তবে ম্যাক্স যা করে দেখাল তার জন্য তার সম্মান প্রাপ্য। তাদের পরিবারের হিরো এখন পোষা ম্যাক্স। ম্যাক্সের সুখ্যাতি এখন মুখে মুখে নরল্যাং জুড়ে।