পাথর টপকালেই সাবালক

ঢাকা, শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১ | ২১ ফাল্গুন ১৪২৭

পাথর টপকালেই সাবালক

ডেস্ক রিপোর্ট ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০২১

print
পাথর টপকালেই সাবালক

একজন মানুষের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হয়ে গেলেই সে সাবালক হয়ে যায়। অবশ্য কোনো কোনো দেশ আছে যেখানে ২১ বছর বয়স হলে তবে সাবালকত্ব স্বীকার করা হয়। আর এই আইন অনুযায়ী কেউ সাবালক হলেই সে মোটামুটি বিয়ে করতে পারে। তবে ইন্দোনেশিয়ার দ্বীপ নিয়াসে বয়স নয়, পরীক্ষার মাধ্যমে সাবালকত্বের প্রমাণ হয়। নিয়াস আদিবাসী গোষ্ঠীর অন্তর্গত পুরুষদের সাবালক হয়ে ওঠার পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে অনুষ্ঠিত হয় ফাহোমবো উৎসব। ফাহোমবো উৎসবে এই আদিবাসী গোষ্ঠীর অবিবাহিত এবং কম বয়সি পুরুষরা একটি উঁচু পাথর এক লাফে টপকে গিয়ে নিজেদের সাবালকত্বের প্রমাণ দেয়। অর্থাৎ যারা এই পাথর এক লাফে টপকে যেতে সফল হয় তারাই কেবলমাত্র সাবালক হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করে।

সাবালক নিয়াস পুরুষদের সঙ্গে ওই আদিবাসী গোষ্ঠীর মেয়ের বাবারা নিজের মেয়ের বিয়ে দেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লাগেন। নিয়াস সমাজে প্রেম স্বীকৃত হলেও প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যে বিয়ে হওয়ার আগে প্রেমিককে ফাহোমবো উৎসবের প্রতিযোগিতায় নিজের সাবালকত্বের প্রমাণ দিতে হয়। আর যদি প্রতিযোগিতায় উতরোতে না পারে তবে প্রেম থাকা সত্ত্বেও তাদের বিয়ে করার অনুমতি দেওয়া হয় না। তবে একজন নিয়াস পুরুষ যতক্ষণ পর্যন্ত না সাবালকত্বের পরীক্ষায় পাস করতে পারছে, ততক্ষণ পর্যন্ত প্রতি বছর ফাহোমবো উৎসবে সে প্রতিযোগী হিসেবে অংশগ্রহণ করতে পারে। নিয়াস বাবা-মায়েরা অনেক ছোটবেলায় থেকে তাদের পুত্র সন্তানদের এই পাথর টপকানোর জন্য প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করে। নিয়াসদের মধ্যে উৎসবের পাথর। টপকানো প্রতিযোগিতার প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য বেশকিছু প্রশিক্ষক আছেন।