মাতৃ স্নেহের দৃষ্টান্ত

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২০ | ১০ মাঘ ১৪২৬

মাতৃ স্নেহের দৃষ্টান্ত

ডেস্ক রিপোর্ট ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯

print
মাতৃ স্নেহের দৃষ্টান্ত

মা হারা তিনটি ছানা লালনের দায়িত্ব নিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করল পামুক নামে একটি বিড়াল। ছানাগুলো জন্ম দেওয়ার ক’দিনের মধ্যেই সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায় মা বিড়ালটি। এরপর থেকে অনাহারে কোনো রকম দিন কাটছিল ছানা তিনটির। ঠিক সে সময়ে পামুক নামের একটি বিড়াল নতুন মা হিসেবে আবির্ভুত হয়ে পরম আদর-ভালোবাসায় বুকে তুলে নেয় পামুক। ঘটনাটি তুরস্কের পূর্বাঞ্চলের একটি ভ্যান ক্যাট সেন্টারের।

পরিচালক প্রফেসর আব্দুল্লাহ কায়া বলেন, তারা প্রথমে পামুককে ওই তিনটি বিড়াল ছানার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন এবং তারপর থেকেই পামুক তাদের দেখাশুনা করে আসছে। প্রথম যখন ওই ছানাদের দেখি তখন ওরা খুবই ক্ষুধার্ত ছিল। পামুক যে কোনো মূল্যে তাদের খাওয়া ও রক্ষার দায়িত্ব নেয়। ঘটনাটি খুবই চমকপ্রদ।

বিড়াল সাধারণত অন্য বিড়ালের বাচ্চাদের সহ্য করতে পারে না। কিন্তু ভ্যান ক্যাটরা অন্য প্রজাতি থেকে আলাদা। এরা জন্মগতভাবেই মাতৃ স্বভাবের এবং বাচ্চাদের জন্য প্রতিরক্ষামূলক। পামুক জানে এগুলো তার বাচ্চা নয়, কিন্তু তারপরও তাদেরকে মায়ের মতো আগলে রাখে। তাদের ছেড়ে কোথাও যায় না।

এই প্রজাতির বিড়াল সাধারণত বন্ধুত্বসুলভ আচরণ, সিল্কি পশম, সিংহের মতো চলাফেরা, নরম তুলতুলে পশমের লেজ, মিশ্র রঙিন চোখ এবং পানি প্রিয় হিসেবে এরা পরিচিত। সঙ্করবর্ণ প্রজাতির মধ্যে এটি একটি বিরল শ্রেণি।