কাকের অত্যাচারে গৃহবন্দি

ঢাকা, সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১ আশ্বিন ১৪২৬

কাকের অত্যাচারে গৃহবন্দি

ডেস্ক রিপোর্ট ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

print
কাকের অত্যাচারে গৃহবন্দি

কাককুলের প্রতিশোধের ঠেলায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের এক যুবকের জীবন। শিবপুরী জেলার সুমেলা গ্রামের ওই যুবকের নাম শিব কেওয়াত। গত তিন বছর ধরে এলাকার কাকদের অত্যাচারে একপ্রকার গৃহবন্দি হয়েই দিন কাটাচ্ছেন পেশায় দিনমজুর শিব।

পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম পুরুষ হলেও কোনো কাজ করতে পারেন না তিনি। কারণ, যখনই বাড়ি থেকে বাইরে বের হন তখনই এলাকার প্রায় সমস্ত কাক এসে একযোগে আক্রমণ চালায়। সারা শরীর ঠুকরে রক্তাক্ত করে দেয়। কোনোভাবেই তাদের আক্রমণ থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারেন না শিব। লাঠি হাতে বেরিয়েও কোনো লাভ হয় না।

ঘটনাটির সূত্রপাত হয়েছিল তিন বছর আগে। একদিন সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে শিব দেখেন, একটি বাচ্চা কাক সামনে লোহার তারের জালের মধ্যে আটকে পড়েছে। তার সরিয়ে ছানাটিকে উদ্ধার করতে যান তিনি। কিন্তু তারের খোঁচায় গুরুতর জখম কাকটিকে জাল থেকে মুক্ত করার পর সে মারা যায়। দূর থেকে সেই দৃশ্য দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ওই বাচ্চা কাকের অভিভাবক ও আত্মীয়রা।

তাদের ধারণা হয়, শিবই তাদের বাচ্চাকে মেরেছে। সেই থেকে তার পিছু লেগেলে সেখানকার কাকগুলো।