রহস্যঘেরা জাহাজ

ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬

রহস্যঘেরা জাহাজ

ডেস্ক রিপার্ট ১:২৩ অপরাহ্ণ, জুন ১২, ২০১৯

print
রহস্যঘেরা জাহাজ

পৃথিবীর অন্যতম রহস্যময় একটি জাহাজের নাম ‘মেরি সেলেস্ট’। আটলান্টিক মহাসাগরে খুঁজে পাওয়া জাহাজটি ঘিরে রয়েছে নানা রহস্য। ভুতুড়ে জাহাজটির কেন এই পরিণাম, কি হয়েছিল এটির, তা নিয়ে চলছে বিস্তার জল্পনা-কল্পনা। এমনটি পৃথিবীর অন্যতম রহস্যময় ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করা হয় এটিকে। কিন্তু কেন?

১৮৬০ সালের শেষের দিকে নোভা স্কোশিয়ার ‘বে অফ ফান্দি’র পাড়ে স্পেনসার দ্বীপে জাহাজটি তৈরি করা হয়। জাহাজটির প্রথম নাম ছিল ‘আমাজন’। পরবর্তীকালে এটি মার্কিন এক বণিকের কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয়।

এর নতুন নাম রাখা হয় ‘মেরি সেলেস্ট। ১৮৭২ সালের ৭ নভেম্বর ক্যাপ্টেন বেঞ্জামিন ব্রিগস তার স্ত্রী, সন্তান এবং ৭ জন নাবিককে নিয়ে নিউইয়র্ক থেকে জিনোয়ার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন। যাত্রা শুরু করলেও মাঝ পথে প্রবল ঝড় এবং ভয়ঙ্কর ঢেউয়ের মুখোমুখি হতে হয় মেরিকে। কিন্তু এত বিপদে পড়েও কোনো রকম ক্ষতি হয়নি মেরির।

১৮৭২ সালের ৫ ডিসেম্বর পর্তুগালের তট থেকে প্রায় দেড় হাজার কিলোমিটার দূরে আটলান্টিক মহাসাগরে আজর দ্বীপের কাছে ব্রিটিশ জাহাজ ‘দি গ্রাসিয়া’ দেখতে পায় মেরিকে। ফাঁকা জাহাজ দেখে সন্দেহ হয় গ্রাসিয়ার নাবিকদের। দেখা যায়, জাহাজটিতে ছয় মাসের খাবার থেকে শুরু করে নাবিকদের জামাকাপড় সবই সঠিক অবস্থায় রয়েছে। নেই শুধু কোনো মানুষের চিহ্ন। আশ্চর্যজনকভাবে নিখোঁজ ছিল একটি লাইফ বোটও।