মৃত্যুর ৩০ বছর পর বিয়ে!

ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

মৃত্যুর ৩০ বছর পর বিয়ে!

ডেস্ক রিপোর্ট
🕐 ৫:৪৮ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৫, ২০২২

মৃত্যুর ৩০ বছর পর বিয়ে!

সম্প্রতি ভারতের কর্ণাটকে শোভা ও চান্দাপ্পা নামের দুটি শিশুকে বিয়ে দেয়া হয়, যাদের মৃত্যু হয় গাঁটছড়া বাঁধার ৩০ বছর আগে। সেই বিয়ের বিভিন্ন আয়োজনের ধারাবাহিক বিবরণ নিজ টুইটার অ্যাকাউন্টে তুলে ধরেন ইউটিউবার অ্যানি অরুণ।

ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কর্ণাটক ও কেরালায় জন্মের সময় কোনো শিশু মারা গেলে তার আত্মার প্রতি সম্মান জানাতে চল আছে বিয়ের। স্থানীয় ভাষায় একে বলা হয় ‘প্রেথা কল্যাণম’ (মৃতের বিয়ে)।

সে বিয়েতে সাত পাকে বাঁধার মতো রীতি যেমন থাকে, তেমনই থাকে খাবার আয়োজনের মতো আনুষ্ঠানিকতা। থাকে না শুধু জীবিত বর কিংবা কনে। গতকাল বৃহস্পতিবার তেমনই একটি বিয়ের আয়োজন হয় কর্ণাটকের দক্ষিণ কন্নড় জেলায়।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই দিন শোভা ও চান্দাপ্পা নামের দুটি শিশুকে বিয়ে দেয়া হয়, যাদের মৃত্যু হয় গাঁটছড়া বাঁধার ৩০ বছর আগে। সেই বিয়ের বিভিন্ন আয়োজনের ধারাবাহিক বিবরণ নিজ টুইটার অ্যাকাউন্টে তুলে ধরেন ইউটিউবার অ্যানি অরুণ।

তিনি টুইটের একটিতে লেখেন, ‘আজ একটি বিয়ের আয়োজনে আছি। কেন এটা টুইটের দাবি রাখে, সে প্রশ্ন হয়তো আপনারা করতে পারেন। আচ্ছা, বর আসলে মৃত এবং কনেও মৃত। তা-ও প্রায় ৩০ বছর আগে। আজ তাদের বিয়ে।

অ্যানি অরুণ জানান, বিয়েতে মৃত শিশুদ্বয়ের পরিবর্তে রাখা হয়েছিল তাদের দুটি কুশপুতুল। তিনি জানান, বিয়ের অংশ হিসেবে বর ও কনের পরিবারের লোকজন একে অপরের বাসায় যান। রীতির অংশ হিসেবে প্রতীকী বর ও কনেকে দিয়ে সাত পাক দেয়া হয়।

ওই বিয়ের আয়োজন উপভোগ করতে পারেনি কোনো শিশু কিংবা অবিবাহিত কেউ। ইউটিউবার অরুণ জানান, বিয়েতে বড় পরিসরে খাবারের আয়োজন করা হয়। খাবারের মধ্যে ছিল মাছ ভাজা, চিকেন সুক্কা, মাটন গ্র্যাভি ও জনপ্রিয় পিঠা ইদলি।

 
Electronic Paper