কমলগঞ্জে সেঞ্চুরি ছাড়াল পিয়াজের দাম

ঢাকা, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

কমলগঞ্জে সেঞ্চুরি ছাড়াল পিয়াজের দাম

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ৫:০৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৬, ২০১৯

print
কমলগঞ্জে সেঞ্চুরি ছাড়াল পিয়াজের দাম

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে আবারও চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে পিয়াজ। মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে পিয়াজের কেজি ৮৫ টাকা থেকে ১২০ টাকা দরে বিক্রি হওয়ায় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন স্বল্পআয়ী সাদারন মানুষ।

শুক্রবার ভানুগাছ বাজার ঘুরে দেখা যায়, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম অনেকটা বেড়ে গেছে। তবে পিয়াজ ও রসুনের দাম রয়েছে স্বল্প আয়ের মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। প্রতি কেজি পিয়াজ বুধবারে বিক্রি হয়েছিল ৮৫ টাকা করে।

আর বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে এ পিয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা দরে। রসুনের কেজি ১৩০ টাকা থেকে ১৫০, কাঁচা মরিচ কেজি ১০০ টাকা, ধনে পাতা কেজি ১৫০ টাকা, আদা কেজি ১৫০ টাকা হারে বিক্রি করতে দেখা গেছে।

সম্প্রতি আলুর দামও কেজি প্রতি পাঁচ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। বাজারে প্রচুর পরিমাণে শাক সবজি আসায় শাক-সবজির দাম তুলনামূলক ক্রয় ক্ষমতার ভিতরে রয়েছে।

ক্রেতারা বলেন, পিয়াজ ও রসুনের যে দাম তাতে আমাদের না খেয়েই থাকতে হচ্ছে। আমাদের যে আয় তা দিয়ে পিয়াজ, রসুন কিনে খাওয়া কোনো মতেই সম্ভব নয়। তারপরও প্রয়োজনের তাগিদে স্বল্পহারে পিয়াজ রসুন কিনে নিচ্ছেন তারা। তাছাড়া বাজারে এখন সব ধরনের জিনিসপত্রের দাম বেশি।

ভানুগাছ বাজারের মুদি ব্যবসায়ীরা বলেন, শ্রীমঙ্গলের আড়ৎ থেকে বেশী দামে পিয়াজ রসুন কিনতে হচ্ছে বলে বাজারে বেশী দামে বিক্রি করছেন। আগামী মাসে দেশি নতুন পিয়াজ বাজারে না আসা পর্যন্ত দাম চড়া থাকবে।