মণিপুরী পল্লীতে হামলা

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬

মণিপুরী পল্লীতে হামলা

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ৯:৫৮ অপরাহ্ণ, জুন ০৭, ২০১৯

print
মণিপুরী পল্লীতে হামলা

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে গরু চুরির প্রতিবাদ করায় এক মণিপুরী পল্লীর এক বাড়িতে হামলা ও লুটপাট করেছে চোরেরা। এ সময় চোরদের হামলায় মণিপুরী পরিবারের চার জন আহত হয়েছেন। ঈদের পরদিন গত বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার মাধবপুর পাঞ্জীবাড়ি এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় মণিপুরী পল্লীতে আতঙ্ক বিরাজ করছে। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছে।

আহত অরুণ সিংহ ও তার পরিবারের লোকজন অভিযোগ করে বলেন, গত ২৩ মে সকালে গরুকে ঘাস খাওয়ানোর জন্য বাড়ির পাশে শ্মশান মাঠে খুটি মেরে রেখে কিছু দূরে ধানি জমিতে কাজ করছিলাম। দুপুরের দিকে দেখি দুটি লোক খুটি থেকে আমাদের গরু খুলে নিয়ে যাচ্ছে। এ সময় আমি এগিয়ে গেলে আমাদের পার্শ্ববর্তী ছয়ছিড়ি গ্রামের কুদ্দুস মিয়ার ছেলে সাবাজ মিয়া (২৩) ও তার চাচা ফারুক মিয়ার ছেলে সাজ্জাদ মিয়া (২৪) গরু নিয়ে লুকিয়ে পড়ে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে তাদের শ্মশানের একটি জঙ্গলের মধ্যে গরুসহ ধরে ফেলি। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তাদের সহযোগী মধু মিয়া (৩০) ধারালো একটি রাম দা নিয়ে আমার দিকে তেড়ে আসলে আমি প্রাণ বাঁচাতে দৌড়ে চলে এসে বাড়িতে জানালে চোররা গরু ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনার ১৩ দিন পর বৃহস্পতিবার দুপুরে গরু চোর সাবাজ ও সাজ্জাদের নেতৃত্বে একদল দুষ্কৃতিকারী গরুর মালিক অরুন সিংহ (৫২) ও তার ভাই রাজকুমার সিংহের (৫৬) ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় মহিলাসহ আরও দুজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার রাতে অরুণ কুমার বাদী হয়ে মাধবপুর ইউনিয়নের ছয়চিরী গ্রামের সাবাজ মিয়া, মধু মিয়া, সাজ্জাদ মিয়া, আফজাল মিয়া, কুদ্দুস মিয়া, আছলম মিয়া, বুদুর মিয়া, হান্নান মিয়া ও জাহাঙ্গীর মিয়ার নাম উল্লেখ করে আরো ৩৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে কমলগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন।

আহত অরুণের স্ত্রী ফাজা দেবী বলেন, চোরচক্র ঘরবাড়ি ভাংচুর করে নতুন ঘরের রড ও সিমেন্ট ক্রয় করার জন্য শোকেচে রাখা নগদ এক লাখ ২০ হাজার টাকা ও এক ভরি ওজনের একটি স্বর্ণের বালা ও মালা লুট করে নিয়ে যায়। স্থানীয় বাসিন্দা প্রিয়া সিনহা জানান, গরু চুরির ঘটনাটি ১২-১৩ দিন আগের। তখন ভুক্তভোগী অরুণ সিংহকে দা দিয়ে কোপানোর চেষ্টা করে চোরো। তিনি আত্মরক্ষার চেষ্টা করলে ও চিৎকারে লোকজন জানাজানি হলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ সম্পর্কে মাধবপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ওয়ার্ড মেম্বারকে জানানো হয়েছে।
কমলগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক বেলায়েত হোসেন বলেন, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার রাতে অরুণ সিংহ বাদী হয়ে কমলগঞ্জ থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছিল। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখা হবে।