ভাঙ্গা রাস্তায় জনদুর্ভোগ চরমে

ঢাকা, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২ | ১৮ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ভাঙ্গা রাস্তায় জনদুর্ভোগ চরমে

এনামুল হক মিলাদ,আজমিরীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)
🕐 ৬:৩৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ০৭, ২০২২

ভাঙ্গা রাস্তায় জনদুর্ভোগ চরমে

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে ভাঙ্গা রাস্তায় চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে তিনটি ইউনিয়নের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ। গত ১৭ জুন থেকে শুরু হওয়া বানের পানির তোড়ে সদর ইউনিয়ন,কাকাইলছেও এবং বদলপুর ইউনিয়ন সহ উপজেলার ৩২ কিলোমিটার রাস্তার বিভিন্ন স্থানে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়। সম্প্রতি বানের পানি নেমে যাওয়ার পর ঐ রাস্তয় চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন ত্রিশটি গ্রামের লক্ষাধিক বাসিন্দা। উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) বলছে রাস্তাঘাটের ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

 

সরজমিনে উপজেলার কাকাইলছেও-আজমিরীগঞ্জ সড়কে গিয়ে দেখাযায়, পৌরসভার ভাটী সমিপুর ১টি, সদর ইউনিয়ের রনিয়ায় ৩টি, কাকাইলছেও ইউনিয়নের কালনীপাড়া ব্রীজের অংশে ১টি সহ মোট ৫ টি অংশে বিশাল আকারের ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়াও কাকাইলছেও বাজার থেকে রসুলপুরের রাস্তাটি পুরোটাই ভেঙ্গে গেছে। একই অবস্থা বদলপুর- আজমিরীগঞ্জ সড়কেরও। বদলপুর ইউনিয়নের কৈয়ারঢালা,বদলপুর,নদীপুর, নিকলীর ঢালা সহ মোট পাঁচটি অংশে বড় ধরনের ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়েছে। বন্ধ রয়েছে সব রকমের যানবাহন চলাচল। এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের আভ্যন্তরীণ রাস্তাা ঘাট ভেঙ্গে চলাচলের ভোগান্তিতে পড়েছে লাখো মানুষ।

কাকাইলছেও বাজারের ব্যবসায়ী কুহিন সওদাগর জানান-রড,সিমেন্ট সহ দোকানের বিভিন্ন মালামাল ট্রাকে করে নিয়ে আসতাম, এখন রাস্তা ভেঙ্গে যাওয়াতে নৌকা করে আনতে হচ্ছে। এতে বাড়তি খরছ যেমন যাচ্ছে সময় ও বেশী লাগছে।

আনন্দপুর গ্রামের বাসিন্দা তুষার জানান-প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রী,চাকুরীজীবি,ব্যাবসায়ী,রোগী, সাধারণ মানুষ সহ হাজারো মানুষ উপজেলা সদরে যাওয়া আসা করেন। কিন্তু বন্যায় রাস্তা ভেঙ্গে যাওয়াতে নৌকায় যেতে হয়। কোন রোগীকে নিয়ে উপজেলা

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিতে গেলে অনেক সময় রোগীর অবস্থা খারাপ হয়ে যায়।আজমিরীগঞ্জ সরকারি ডিগ্রী কলেজের ছাত্রী পপি আক্তার জানান-আগে ২৫/৩০ মিনিটে কলেজে আসতে পারতাম কিন্তু রাস্তা ভেঙ্গে যাওয়াতে নৌকায় যাওয়া আসা করতে হচ্ছে। সবসময় নৌকা ও পাওয়া যায় না। এ বিষয়ে আজমিরীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী তানজির উল্যাহ সিদ্দিকী বলেন -বন্যায় উপজেলাতে ৩২ কিলোমিটারের বেশী রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ১০০ কোটি টাকারও বেশী। আমরা বিষয়টি
উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানিয়েছি।

 
Electronic Paper