সবার দৃষ্টি ২০২১ সালের দিকে

ঢাকা, বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০২০ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

সবার দৃষ্টি ২০২১ সালের দিকে

ক্রীড়া প্রতিবেদক ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০

print
সবার দৃষ্টি ২০২১ সালের দিকে

বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবল খেলার আগে নেপালের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। বিষয়টি বেশ কয়েকদিন আগে নিশ্চিত করেছে বাফুফে। এমন কি এর দিনক্ষণও চূড়ান্ত হয়ে যায়, আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর। বিষয়টি জানা ছিলো না হেড কোচ জেমি ডে’র। এবার তিনি তা শুনেছেন। এবং বাংলাদেশে আসছে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে। ফেরার আগে মিডিয়ায় শোনালেন প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে তার নানান পরিকল্পনার কথা।

নেপালের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে জেমি ডে বলেন, ‘আমি আসলে চেয়েছিলাম আগামী বছরের জানুয়ারির শেষে প্রীতি ম্যাচ খেলতে। কেননা অন্তত ৬ সপ্তাহ না হলে প্রস্তুতি সেভাবে নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। এখন বর্তমান পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই। 

তিনি আরও বলেন, ‘ আমি সবসময় ডাগ আউটে দাঁড়ানোর জন্য তৈরি থাকি। সেটাই আমার কাজ। সেই লক্ষ্যেই আগামী সপ্তাহে ঢাকায় ফিরছি। দলকে প্রস্তুত করে তুলতে চাই। যা মনে হচ্ছে, প্রথম ম্যাচের আগে দুই সপ্তাহের একটু বেশি সময় পাবো পুরো দলকে তৈরি করতে। পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতি মেনেই যতটুকু সম্ভব ভালো করতে হবে।’

প্রস্তুতি ম্যাচকে ফুটবলারদের প্রস্তুত থাকার নিদের্শনা দিয়েছেন বলে জেমি ডে বলেন, ‘খেলোয়াড়দের নির্দেশনা দিয়েছি। সবাই সেভাবে নিজেদের মতো করে তৈরি হচ্ছে। ডায়েট চার্ট থেকে শুরু করে সবকিছুই বলা আছে। যা আগে থেকেই করে থাকি আমি। এখন ঢাকায় এসে একসঙ্গে সবাইকে কাজ করতে হবে। তৈরি হতে হবে।’

বাংলাদেশে এসেই তিনি অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করতে চান। এ জন্য প্রাথমিক আপাতত ৩৬ জনকে ডাকার কথা শোনা জেমি ডে। এর আগে ফুটবলারদের কোভিড পরীক্ষা করা হবে। তারপর শুরু অনুশীলন।

বাংলাদেশের এই ইংলিশ কোচ প্রীতি ম্যাচ নিয়ে আর বলেন, ‘আমি মনে করি খেলোয়াড়েরা ফিট হয়ে লড়াই করতে পারবে। স্বল্পসময়ের প্রস্তুতিতে যেভাবে খেলা যায়। আশা করছি কোনো ইনজুরি ছাড়া সবাইকে পাব। আমরা দুটি ম্যাচে অবশ্যই জিততে চাই। তবে সেটা কঠিন, তবে এ ম্যাচ দুটিতে ফল হয়তো মুখ্য থাকবে না।

খেলোয়াড়দের পরখ করে দেখা হবে। তাদের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে সবার ধারণা পরিষ্কার হবে। আমি জানি ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে নেপাল এগিয়ে ১৭৭। এখন স্বল্প প্রস্তুতিতে আমাদের বড় পরীক্ষা হবে। হ্যাঁ, আগের বারের লড়াইয়ে আমরা ফিট ছিলাম। ভালো খেলেও ম্যাচটি হেরেছিলাম। সুতরাং এটা আসলেই কঠিন ম্যাচ হবে। তবে ম্যাচ দুটিকে আমি পূর্বের প্রতিশোধ বলবো না। আমার কাছে শুধুই প্রীতি ম্যাচ। খেলতে পারছি এটাই বড়।

তবে আমরা জেতার জন্যই নামবো। কিন্তু আমার দৃষ্টি ২০২১ সালের দিকে। আগামী বছরে অনেক খেলা আছে। বিশ্বকাপ বাছাই থেকে শুরু করে সাফ ও বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ।