তামিমদের পেতে হবে বড় জয়

ঢাকা, শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২০ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

তামিমদের পেতে হবে বড় জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২১, ২০২০

print
তামিমদের পেতে হবে বড় জয়

মিরপুরের উইকেটে ব্যাটসম্যানরা যাই করুক না কেন, প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালের উঠার লড়াইটি বেশ জমে উঠেছে। ফাইনালে ওঠার হিসাবটা আজই মিলে যাবে, তাতে সন্দেহ নেই। কিন্তু তার আগে মাঠের লড়াইয়ে হিসাবটা বেশ জমে উঠেছে। তিন দল নিয়ে বিসিবির প্রেসিডেন্টস কাপে শীর্ষে নাজমুল হোসেন শান্ত একাদশ।

দুই জয় নিয়ে ঠিক তার পিছনের অবস্থান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ একাদশের। কিন্তু এক জয় নিয়ে নেট রান রেটে রিয়াদ একাদশের সঙ্গে তামিম একাদশের খুব একটা ব্যবধান নেই। তবে সব কিছু নির্ভর করছে আজ নাজমুল একাদশের বিপক্ষে তামিম একাদশের জয়-পরাজয়ের অবস্থান। হারলে বিদায় হবেন তামিমরা। আর জিতলে হবে সমীকরণীয় হিসাব। সে ক্ষেত্রে বড় ব্যবধানের জয়টাই তামিমদের নিয়ে যেতে পারে ফাইনালের লড়াইয়ে। 

গত তিন ম্যাচে তামিমরা একটি জয় নাজমুল একাদশের বিপক্ষেই। রিয়াদ একাদশের কাছে হারল দুবার।

২২১ রান করেও তামিমদের শেষ রক্ষা হয়নি। তরুণদের ওপর ভর করে রিয়াদ একাদশ তা টপকে গিয়ে জিইয়ে রাখে ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন। কিন্তু সেটা বড্ড নড়বড়ে। কারণ, নাজমুল একাদশের বিপক্ষে জয়ের রেকর্ড রয়েছে তামিমদের। তাই এই ম্যাচেও তামিমরাই ফেভারিট! পারবেন কি তামিম সেই জয়ের ধারা বজায় রাখতে? মাঠের লড়াইয়ের আগে এখন এটি বড় প্রশ্ন হয়ে উঠেছে।

কারণ, দলের টপ অর্ডারদের ব্যর্থতায় হতাশ অধিনায়ক তামিম নিজেই। ক্রমান্বয়ে টপ অর্ডারদের ব্যাটিং চিত্র মøান হয়ে উঠেছে। সেটাই যে তামিমের হতাশার জায়গা। এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই। শুধু টপ অর্ডার না। ছয় নম্বর পর্যন্ত ব্যাটিং পজিশন নিয়েই ভাবতে হচ্ছে। ইয়াসির ও অঙ্কন ছাড়া কেউ ভালো করতে পারেনি, শেষদিকে মোসাদ্দেক ও সাইফউদ্দিন ভালো খেলেছে। এমন যদি হত খুব বাজে উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য তাহলে একটা কথা ছিল।’

তবে তাদের চেষ্টায় থাকছে সেই ব্যর্থতার জাল কেটে বেরিয়ে আসার। যেহেতু ফাইনালে উঠার লড়াই,তাই ভালো খেলার বিকল্প কিছু নেই বলেও জানালেন তামিম ইকবাল।

উল্লেখ্য আসরে একমাত্র মাহমুদউল্লাহ একাদশই চারটি ম্যাচ খেলে ফেলেছে। তাতে দলটির জয় দুটি ম্যাচে, দুটিই তামিমদের বিপক্ষে। নাজমুল একাদশ মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে দুটি ম্যাচে জয় পেয়েছে, তবে হেরেছে তামিমদের বিপক্ষে। তামিমদের বিপক্ষে দ্বিতীয় দেখায়ও যদি শান্তর দল হেরে যায়, তাহলে ফাইনালে শান্ত আর তামিমের দলই একে অপরের মোকাবেলা করবে।