বোলিংয়ে মুশফিক-ইমরুল

ঢাকা, রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০ | ১০ কার্তিক ১৪২৭

বোলিংয়ে মুশফিক-ইমরুল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ৩:২৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

print
বোলিংয়ে মুশফিক-ইমরুল

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঢুকতেই অন্যরকম পরিবেশ। পুরো মাঠজুড়ে টাইগার ক্রিকেটাররা যেভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছে তাতে করোনাকাল বলে যে কিছু আছে তা বোঝা কঠিন। মেঘ-বৃষ্টি-রোদ উপেক্ষা করে শ্রীলঙ্কা সফরকে কেন্দ্র করে জোরেশোরেই প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছেন তামিম-মুশফিকরা।

গত রোববার থেকে বায়ো সিকিউর বাবলে (জৈব সুরক্ষিত পরিবশে) থেকে অনুশীলন করছেন টাইগাররা। কোচিং স্টাফসহ দলের সকল সদস্য উঠেছেন একটি পাঁচ তারকা হোটেলে। ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট আর হোটেলের কর্মীরা ছাড়া ক্রিকেটাররা বলতে গেলে জনবিচ্ছিন্ন। টাইগাররা জোরে-শোরে প্রস্তুতি চালালেও এখনো শ্রীলঙ্কা থেকে সফর নিয়ে সবুজ সংকেত পায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

গতকাল মঙ্গলবার পূর্বনির্ধারিত সময়ানুযায়ী দুপুর ২টা থেকে শুরু হয়ে এই অনুশীলন চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং থেকে শুরু করে মাঠে শারীরিক কসরত পর্যন্ত করেন টাইগাররা। তবে ব্যাটিংয়ে দেখা গেছে টেল এন্ডারদের। মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলামসহ তাসকিন আহমেদরা ব্যাটিংয়ে নিজেদের প্রস্তুতি সারেন।

অবাক করা বিষয় হলেও তাদেরকে বোলিং করেছেন মুশফিকুর রহীম, ইমরুল কায়েসরা। আর তাদের বোলিং-ব্যাটিং দেখার দায়িত্ব নিয়ে আম্পায়ারিং করেন ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল। প্রথমে তাইজুল কিছুক্ষণ ব্যাটিং করেন। এরপর আসেন মিরাজ-তাসকিন। এর আগে ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে সকলেই ফিল্ডিং অনুশীলন করেন রায়ান কুকের অধীনে।

একদিকে যখন রায়ান কুক মুমিনুল-ইমরুলদের ফিল্ডিং শেখাচ্ছেন অন্যদিকে গিবসন নিচ্ছিলেন ক্যাচের ক্লাস। দূর থেকে তাসকিন-মিরাজরা দৌড়ে গিয়ে কোনোটি তালুবন্দী করছেন আবার কোনোটি মাটিতে পড়ে যাচ্ছে। এভাবেই চলছিল টাইগারদের তৃতীয় দিনের অনুশীলন।

শ্রীলঙ্কা সফর উপলক্ষে প্রস্তুতির জন্য ২৭ জনের দল করলেও অনুশীলনে উপস্থিত আছেন ১৬ জন। সাইফউদ্দিন-মোসাদ্দেক হোসেনসহ ১১ ক্রিকেটার আছেন আইসোলেশনে। দুজন ক্রিকেটারের মধ্যে করোনার উপসর্গ থাকায় তাদের সহচর্যে আসা এই ১১ জনকে একাডেমি ভবনে রাখে বিসিবি। এখানে থেকেই তারা অবশ্য একাডেমি মাঠে অনুশীলন করছেন। আজ তাদের টেস্ট হয়েছে, নেগেটিভ এলেই যুক্ত হবেন মূলদলের সঙ্গে।

টাইগারদের এই অনুশীলন চলবে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। তবে শ্রীলঙ্কা এখনো কিছু না জানানোতে অনুশীলনের সময় বাড়তে পারে আরও। টাইগারদের ঢাকা ত্যাগ করার কথা আছে ২৭ সেপ্টেম্বর। সেটা বদলে গিয়ে হতে পারে ২ কিংবা ৩ অক্টোবর। তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট হওয়ার কথা রয়েছে ২৪ অক্টোবর।