প্রস্তুতি রাখছে বিসিবি

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর ২০২০ | ৭ কার্তিক ১৪২৭

প্রস্তুতি রাখছে বিসিবি

করোনা পরীক্ষা শুরু

ক্রীড়া প্রতিবেদক ১:২৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০

print
প্রস্তুতি রাখছে বিসিবি

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফরের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখন নির্ভর করছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ডের ওপর। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাদের শর্তের কথা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে (এসএলসি) বিবেচনার জন্য জানিয়ে দিয়েছে। সফরের বিষয়ে লঙ্কান বোর্ড এখনো তাদের সিদ্ধান্ত জানায়নি। সফর চূড়ান্তের সিদ্ধান্ত এসএলসি থেকেই আসতে হবে। তার জন্যই এখন অপেক্ষা করছে বিসিবি। তবে বিকল্প ভাবনাও ভেবে রেখেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এদিকে গতকাল শুক্রবার থেকে ক্রিকেটারদের দ্বিতীয় ধাপের করোনা পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

সংবাদ মাধ্যমকে বিসিবির পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস গত বৃহস্পতিবার জানান, সফরের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হলেও সফরের জন্য সব রকমের প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে বিসিবি। সবুজ সংকেত পেলেই যেন যথা সময়ে সফরে যেতে পারে টাইগাররা।

জালাল ইউনুস বলেন, ‘নির্দিষ্টভাবে আমাদের এখান থেকে কিছু বলা কঠিন। কারণ উত্তরটা ওখান থেকে আসবে। এটা এমন একটা বিষয়, যা তাদের জাতীয় পর্যায়ের সিদ্ধান্ত। এমন না যে, শুধু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সিদ্ধান্ত। সুতরাং তাদের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করতেই হবে। আমরা এখান থেকে চাপ দিলেও তাতে কাজ হবে না। তারা নিজেরাই জানাবে আমাদের। তারই অপেক্ষায় আছি। পরবর্তী দুই-তিন দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত আসতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা প্রস্তুত। আগে যেরকম প্রস্তুতি নেওয়ার কথা ছিল সেরকম প্রস্তুতিই নিয়ে রেখেছি। ইতিবাচক কোনো উত্তর আসলে আমরা এক সপ্তাহের মধ্যে প্রস্তুতি নিতে পারব। সেদিক দিয়ে আমাদের কোনো অসুবিধা হবে না। দু-একদিন হয়তো এদিক সেদিক হতে পারে। বেশি দেরি করলে আবার আমাদের হয়তো নতুন করে চিন্তা-ভাবনা করতে হবে।’

জালাল ইউনুস জানান, সফরে ৭ দিনের বেশি কোয়ারান্টিন করতে পারবে না টাইগার ক্রিকেটাররা। কিন্তু লঙ্কান বোর্ডও তাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়ে ১৪ দিনের কমে পারছে না। এ অবস্থায় ঝুলে আছে বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরের ভাগ্য। তবে এভাবে তো আর ঝুলে থাকবে না। লঙ্কান বোর্ড দেরি করলে বিসিবি ভিন্ন চিন্তা করবে।

এদিকে ক্রিকেটারদের দ্বিতীয় ধাপের করোনা পরীক্ষা গতকাল শুরু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন থাকলেও সেটা বন্ধ করে দেওয়া হয়। বুধবার রাতে বিসিবি সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি জানিয়ে দেয়। মূলত ক্রিকেটারদের দ্বিতীয় ধাপে করোনা পরীক্ষার জন্যই অনুশীলন বন্ধ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ঢাকার বাইরে ব্যক্তিগত অনুশীলন করা ক্রিকেটারদের ঢাকায় আসার জন্য বলা হয়েছে।

করোনা পরীক্ষার প্রথমদিন ঢাকায় অবস্থান করা ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফদের করোনা পরীক্ষা করা হবে। দ্বিতীয়দিন অর্থাৎ আজ শনিবার পরীক্ষা করা হবে ঢাকার বাইরে থেকে আসা ক্রিকেটারদের।

এখনো শ্রীলঙ্কা সফরের টেস্ট স্কোয়াড ঘোষণা হয়নি। তাই কাদের করোনা টেস্ট করানো হবে, তা জানা নেই মেডিক্যাল কমিটির। জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়েছেন, যে ২৭ ক্রিকেটারেরর ‘জিও’ (গর্ভনমেন্ট অর্ডার) হয়েছে, তাদের সবারই করোনা টেস্ট করানো হবে।

গতকাল সকাল থেকেই শুরু হয়েছে ক্রিকেটারদের করোনার নমুনা সংগ্রহের কাজ। যথারীতি বারডেমের এক্সপার্টরা ক্রিকেটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্যাম্পল সংগ্রহ করার কাজে নেমে পড়েছেন।

ঢাকায় অবস্থানরত সেই ১৮ জনের করোনা টেস্ট হয়েছে গতকাল। কোচিং স্টাফ বিশেষ করে এখন রাজধানীতে অবস্থানরত ৪ বিদেশি কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, ওটিস গিবসন, রায়ান কুক ও নিক নেইল দেশে আসার পর এরই মধ্যে তিনবার টেস্ট করানো হয়েছে। তাদের ২১ সেপ্টেম্বর করোনা পরীক্ষা করা হবে।

এর আগে গত ৭ ও ৮ সেপ্টেম্বর প্রথম ধাপের করোনা পরীক্ষা করেছিল বিসিবি। তখন জাতীয় দলের ওপেনার সাইফ হাসান ও জাতীয় দলের প্রধান ট্রেনার নিক লি’র করোনা পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে।

নিক লি সুস্থ হয়ে অনুশীলনে যোগ দিলেও সাইফ হাসান এখনো সুস্থ হননি। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকে আবারও ঢাকায় শুরু হবে টাইগারদের অনুশীলন।