‘ক্রিকেটে নিরাপত্তা শঙ্কা সবখানেই’

ঢাকা, রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ | ১৫ চৈত্র ১৪২৬

‘ক্রিকেটে নিরাপত্তা শঙ্কা সবখানেই’

ক্রীড়া ডেস্ক ১২:২৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২০

print
‘ক্রিকেটে নিরাপত্তা শঙ্কা সবখানেই’

সেই ২০০৯ সাল। শ্রীলঙ্কা দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছিল। এরপর থেকে পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলাটা নিষিদ্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘ সময় পর আবারও সেখানে গড়াচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। যেখানে বাংলাদেশও খেলেছে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট ম্যাচ। এবার সেখানে খেলতে গেছে মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি)। বেশ কয়েকটি প্রদর্শনী ম্যাচ তারা সেখানে খেলবে। এমসিসির সভাপতি এখন সাঙ্গাকারা।

যিনি ২০০৯ সালে পাকিস্তান সফরে ছিলেন। এবার তিনিই দল নিয়ে এসে পাকিস্তানের প্রশংসা করেছেন। নিরাপত্তা নিয়ে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘নিরাপত্তা-শঙ্কা তো এখন শুধু পাকিস্তানে নয়, বিশ্বের সব জায়গাতেই আছে। যত বেশি আন্তর্জাতিক দল পাকিস্তান সফর করবে, তত শক্ত বার্তা যাবে অন্যদের কাছে। এমসিসি এখানে এসেছে, কারণ আমাদের মূল দর্শনগুলোর একটিই, ক্রিকেটের চেতনা যে অন্য সব বাধাকে ছাপিয়ে যায়। যে বাধাগুলো মাঝে মধ্যে দেশে দেশে, মানুষে মানুষে বিভেদ তৈরি করে। ব্যক্তিগতভাবে আমার পাকিস্তান সফরের অনেক মধুর স্মৃতি আছে, বিশেষ করে লাহোরের।’

তিনি আরও বলেন, ‘ক্রিকেট ধীরে ধীরে পাকিস্তানে ফিরে আসছে। যে দলগুলো সবার আগে পাকিস্তানে এসেছে, তাদের একটি শ্রীলঙ্কা। একজন শ্রীলঙ্কান হিসেবে ও এমসিসির প্রধান হিসেবে আমার তাই ভালো লাগছে এই ভেবে যে, আমরা আমাদের দিক থেকে কিছু করতে পেরেছি। অন্য দেশগুলোকে পাকিস্তানে আসতে উৎসাহ জোগাতে পেরেছি।’

সফরের বার্তা প্রসঙ্গে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘আমাদের কাছে এই সফরটা সবাইকে বার্তা দেওয়ার আর পাকিস্তানকে তাদের দেশে ক্রিকেট ফেরানোর এই অসাধারণ সফরে সাহায্য করার উদ্দেশ্যে আয়োজিত। ক্রিকেট সবার জন্যই। লম্বা সময় ধরে ক্রিকেট কোনো জায়গায় না থাকলে খেলাটার খিদে মরে যাওয়ার শঙ্কা থাকে।’

আজ শনিবার থেকে শুরু সফর চলবে ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ১২ জনের এই দলটি লাহোরে পাকিস্তানের চারটি ভিন্ন দলের বিপক্ষে ম্যাচ খেলবে লাহোর কালান্দার্স, পাকিস্তান শাহিনস, নর্দানস ও মুলতান সুলতানস। ৪৭ বছরের এমসিসির প্রথম পাকিস্তান সফর।