খলনায়ক পান্ত-খলিল

ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

খলনায়ক পান্ত-খলিল

ক্রীড়া ডেস্ক ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ০৫, ২০১৯

print
খলনায়ক পান্ত-খলিল

দিল্লিতে গত রোববার রাতে ভারতের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক টি-২০তে বাংলাদেশকে প্রথম জয় এনে দেওয়ার পর ম্যাচের নায়ক মুশফিকুর রহিম বাংলাদেশে যেমন বীরের মর্যাদা পাচ্ছেন তেমনি ভারতে কিন্তু রাতারাতি খলনায়কে পরিণত হয়েছেন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ঋষভ পান্ত আর ফাস্ট বোলার খলিল আহমেদ।

ঋষভ পান্তের বিরুদ্ধে ভারতের ক্রিকেট ভক্তদের প্রধান ক্ষোভের কারণ, ডিআরএস পদ্ধতিতে রিভিউ নেওয়ার ক্ষেত্রে তিনি দলকে ডুবিয়েছেন। যুজবেন্দ্র চাহালের এক ওভারে দুবার মুশফিক রহিম যখন এলবিডব্লিউ আউট ছিলেন, পান্ত একবারও রিভিউ নেওয়ার ইশারা করেননি। আবার সেই একই ওভারে সৌম্য সরকার যখন কট বিহাইন্ড ছিলেন না, তখন অযথা রিভিউ করিয়েছেন!

আর খলিল আহমেদের বিরুদ্ধে তারা ত্যক্তবিরক্ত, কারণ ১৯তম ওভারে তার ওভারেই পরপর চারটে চার মেরে মুশফিক ম্যাচটা ভারতের হাতের বাইরে নিয়ে যান।
সোশ্যাল মিডিয়াতে বিশেষত খলিলের বিরুদ্ধেই লোকজন রেগে ফেটে পড়ছেন। পুষ্পদীপ বাহাড়ে টুইট করেছেন, ‘শারদুল ঠাকুর, নবদীপ সৈনি, মোহাম্মদ সামি এদেরও আগে কীভাবে খলিল আহমদে দলে জায়গা পান? সবচেয়ে খারাপ সময়ে রান ‘লিক’ করা ছাড়া দলে তার কাজটা কী, কেউ বলতে পারেন?’

বিজয় কোলহে নামে আর একজন লিখেছেন, ‘আমি জানি না ঠিক কোন কর্মসংস্থান প্রকল্পের আওতায় খলিল টিমে ঢুকেছেন! তিনি কি সিলেক্টরদের কোনো গোপন কথা জানেন?’ ‘ব্রোকেন ক্রিকেট’ নামে আর একটি হ্যান্ডল থেকে পরিসংখ্যানসহ টুইট করা হয়েছে, ‘খলিল আহমেদ যে এগারোটি টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক খেলেছেন তার মধ্যে সাতটিতেই কিন্তু তিনি ৩৫ বা তারও বেশি রান দিয়েছেন।’

প্রতীক জৈন নামে আর এক ক্রিকেট ভক্তর রায়, ‘এই খলিল আহমেদ, ঋষভ পান্ত, কে এল রাহুল বা ক্রুনাল পান্ডিয়ার মতো ‘হাফ-বেকড’ (অপরিপক্ব) ক্রিকেটারদের খেলালে ভারতের পরের বছর টি-২০ বিশ্বকাপ জেতার আশা না-করাই ভালো!’

এদিকে সঠিক রিভিউ না-করানোর জন্য ঋষভ পান্তকে আরও বেশি সমালোচনার মুখে পড়তে হচ্ছে, কারণ তার সঙ্গে তুলনাটা হচ্ছে সরাসরি মহেন্দ্র সিং ধোনির।