শীর্ষে ওঠার লড়াই

ঢাকা, শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬

শীর্ষে ওঠার লড়াই

ক্রীড়া প্রতিবেদক ১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ১৩, ২০১৯

print
শীর্ষে ওঠার লড়াই

পয়েন্ট টেবিলে এ দুটি দলই এখন পর্যন্ত অপরাজেয়। নিউজিল্যান্ড তিনটির মধ্যে তিনটি এবং ভারত দুটি ম্যাচ খেলে দুটিই জয়লাভ করেছে। কিউইরা আছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে, অন্যদিকে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলা ভারত আছে তিনে। আজ ট্রেন্ট ব্রিজে এই দুটি দল লড়াইয়ে নামছে শীর্ষে ওঠার জন্য। বৃষ্টির শঙ্কা রয়েছে এই ম্যাচেও। ভারতীয় শিবিরে বাড়তি শঙ্কা হিসেবে আছে ফর্মে থাকা ওপেনার শিখর ধাওয়ানের অনুপস্থিতি। বামহাতের বৃদ্ধাঙ্গুলিতে চির ধরায় অন্তত তিন ম্যাচের জন্য ধাওয়ানের সার্ভিস পাচ্ছে না টিম ইন্ডিয়া। দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম দুই ম্যাচে ধাওয়ানের ফর্ম নিঃসন্দেহে ভারতের জয়ে সহযোগিতা করেছে। যে কারণে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও কোচ রবি শাস্ত্রীকে ওপেনিং নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে।

বড় আসরে ভারতের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ড জয়ের দিক দিয়ে কিছুটা এগিয়ে। এ পর্যন্ত বিশ্বকাপের দুই দলের সাত মোকাবেলায় কিউইরা জিতেছে চারটিতে, ভারত বাকি তিনটিতে। কেন উইলিয়ামসনের দল জয়ের ধারা ধরে রেখে চতুর্থ ম্যাচেও এগিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর। বিরাট কোহলিও যে একই জিনিস চাইছেন, সেটা বলাই বাহল্য।

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ৮ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় শীর্ষ বোলার নিউজিল্যান্ডের ফার্গুসন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিউজিল্যান্ডের আগের ম্যাচে ৩৭ রানে ৪ উইকেট নেওয়া এই পেসার বলেন, ‘তারা প্রমাণ করেছে যে অনেক ধৈর্য নিয়ে খেলছে। আমরাও উইকেট নেওয়ার জন্যই খেলছি, মাঝেমধ্যে হয়তো অনেক রান দিচ্ছি। আমি মনে করি দ্রুত উইকেট নেওয়া হবে ভারতের (হারাতে) বিপক্ষে মূল অস্ত্র। যদি সেটা না হয় তাহলে ডট বল দিয়ে চাপ তৈরি করতে হবে।’

ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইন আপের লাগাম টেনে ধরাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিচ্ছেন এই পেসার, ‘তারা বিশ্বমানের খেলোয়াড়। তাদের আপনি ধ্বংস করতে পারবেন না। কিন্তু আপনি যদি চাপ তৈরি করতে পারেন এবং এরপর কিছুটা সুযোগ পাওয়া যায়, সেটা হতে পারে উইকেট নিয়ে।’

ভারতের সামর্থ্য নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই ফার্গুসনের। তবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে তাদের বিপক্ষে দারুণ লড়াইয়ের আভাস দিচ্ছেন তিনি, ‘অবশ্যই তারা দারুণ খেলছে এবং এই প্রতিযোগিতায় তারা অন্যতম সেরা দল। কিন্তু আমরা ইংল্যান্ডে তাদের বিপক্ষে খেলার সুযোগের অপেক্ষায় আছি, অনেক দিন ইংল্যান্ডে তাদের বিপক্ষে লড়াই করিনি আমরা।’

ওভালে অনুশীলন ম্যাচে বোল্ট ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের স্বস্তি দেননি। তারপর থেকে দুই সপ্তাহ কেটে গেছে, আর বোল্ট এখন পর্যন্ত এই টুর্নামেন্টে খুব একটা সুইং দেখাতে পারেননি। যদিও তার বোলিং স্টাইল কখনই কন্ডিশনের উপর খুব একটা নির্ভর করে না। অন্যদিকে ‘১৫০ কিমি গতিমানব’ লোকি ফার্গুসন তো আছেনই। আজকের ম্যাচে নিজেকে প্রমাণের জন্য মুখিয়ে আছেন এই পেসার। বিশেষ করে ট্রেন্ট ব্রিজের ট্র্যাক বাউন্স সহায়ক হওয়ায় তা পেসারদের বাড়তি সুবিধা দেবে। সেটা কাজে লাগাতে চান ফার্গুসন।