নারীর সতর্কবার্তায় বেঁচে গেলেন তামিম-মিরাজরা

ঢাকা, শনিবার, ২৫ মে ২০১৯ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

নারীর সতর্কবার্তায় বেঁচে গেলেন তামিম-মিরাজরা

খেলাধুলা ডেস্ক ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৫, ২০১৯

print
নারীর সতর্কবার্তায় বেঁচে গেলেন তামিম-মিরাজরা

নিউ জিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুইটি মসজিদে অজ্ঞাত বন্দুকধারীর হামলায় নিহত হয়েছেন ৬ জন। তবে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বেশ কয়েকজন সদস্য। জুমার নামাজ পড়তে ওই মসজিদে যাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলামরা।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে ঘটনাটিকে ‘মারাত্মক’ বলা হয়েছে। তবে টাইগার সদস্যদের সবাই অক্ষত রয়েছেন। আজ (শুক্রবার) পবিত্র জুমার নামাজ আদায় করতে গিয়ে এ ঘটনার সম্মুখীন হতে হলো বাংলাদেশ টিমের কয়েকজন খেলোয়ারের।

জানা যায়, মসজিদে ঢোকার ঠিক আগমুহূর্তে অজ্ঞাত এক নারী এসে তামিমদের সতর্ক করে জানান যে মসজিদের ভেতরে গোলাগুলি হচ্ছে, এখন ভেতরে যাওয়া ঠিক হবে না। সেখানে উপস্থিত সাংবাদিক জানিয়েছেন এমন তথ্য।

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি টেস্ট সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন অবস্থান করছে ক্রাইস্টচার্চে। শনিবার বাংলাদেশ সময় ভোরে হাগলি ওভালে স্বাগতকদের বিপক্ষে খেলতে নামার কথা রয়েছে তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবরে জানা যায়, এ সময় তামিমরা ওই অজ্ঞাত নারীর সতর্কবার্তা শুনে তড়িঘড়ি করে টিম বাসের মধ্যে ঢুকে যায় বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা এবং শুয়ে পড়ে মেঝেতে। খানিক পরেই ঘটনাস্থলে থাকা নিরাপদ হবে না ভেবে তামিম-মিরাজরা বাস থেকে বেরিয়ে হাগলি পার্ক দিয়ে চলে গিয়েছে ক্রাইস্টচার্চের হাগলি ওভাল স্টেডিয়ামের ড্রেসিংরুমে।

আপাতত সেখানেই রয়েছেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। তবে দলের কোচিং স্টাফ এবং দুই তরুণ সদস্য লিটন কুমার দাস ও নাঈম হাসান রয়েছেন টিম হোটেলেই। তাদেরকে সেখানেই থাকতে বলে দিয়েছেন দলের টিম ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলট। তিনি সার্বক্ষণিক যোগাযোগ করেছেন দেশে বিসিবির কর্মকর্তাদের সঙ্গে।