কান্দাপাড়ার বিষাদ কান্না

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

কান্দাপাড়ার বিষাদ কান্না

বাতিঘর ডেস্ক ১:১৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৯

print
কান্দাপাড়ার বিষাদ কান্না

টাঙ্গাইল শহরে অবস্থিত কান্দাপাড়া পতিতালয় বাংলাদেশের যে কয়েকটি পতিতালয় রয়েছে তার মধ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম। প্রায় ১৫০ বছরের পুরনো এই যৌনপল্লীতে বর্তমানে পাঁচ শতাধিক যৌনকর্মী বসবাস করছে।

গত ২০১৪ সালের জুলাই মাসে টাঙ্গাইলের সচেতন নাগরিক সমাজের উদ্যোগে যৌনপল্লীটি উচ্ছেদ করা হয়। যদিও এই উচ্ছেদের নেপথ্যে ছিল টাঙ্গাইলের আলোচিত একটি রাজনৈতিক পরিবার। সে সময় যৌনপল্লীর যৌনকর্মীর সংখ্যা ছিল ৭৬৯ জন। উচ্চ আদালতসহ নানা জটিলতা পেরিয়ে এক বছরের মধ্যে আবারও যৌনকর্মীরা কান্দাপাড়া পল্লীতে ফিরে আসে।

দরিদ্র্যতার শিকার ও স্বামী পরিত্যক্তসহ বিভিন্নভাবে প্রতারণার শিকার বা পাচার হয়ে অনেক কিশোরী মূলত যৌনপল্লীর বাসিন্দা হয়ে থাকে। অন্যদিকে যৌনকর্মীদের কন্যা-সন্তানরাও অনেকে পরে যৌন পেশায় চলে আসে। এসব মহিলা ও কিশোরী খুবই অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে বসবাস করে।

অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে বেড়ে ওঠা ছেলেরা পরিবেশগত কারণে মাদক সেবন, মাদক বিক্রিসহ নানা অসামাজিক কাজে লিপ্ত হয় এবং অপরাধে জড়িয়ে পড়ে।
অন্ধকার জগতের মেয়ে-শিশুরা মায়ের পেশায় অর্থাৎ পতিতাবৃত্তিতে নিয়োজিত হয় অনেক ক্ষেত্রে। এসব শিশুর জন্যই একরকম আশির্বাদ হয়ে দেখা দিয়েছে সোনার বাংলা চিলড্রেন হোম।