বঙ্গবন্ধুর বাজেয়াপ্ত চিঠি

ঢাকা, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

বঙ্গবন্ধুর বাজেয়াপ্ত চিঠি

বিশেষ আয়োজন ডেস্ক ৮:০৫ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১১, ২০১৯

print
বঙ্গবন্ধুর বাজেয়াপ্ত চিঠি

[ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ১২.১১.৫৮ তারিখে টুঙ্গিপাড়া, ফরিদপুরের ঠিকানায় বঙ্গবন্ধুর পিতা শেখ লুৎফর রহমানের কাছে লিখিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাজেয়াপ্ত চিঠি]

রাজনৈতিক বন্দি
ঢাকা জেল
১২/১১/৫৮

আব্বা,
আমার ভক্তিপূর্ণ ছালাম গ্রহণ করবেন ও মাকে দিবেন। মা এবার খুব কষ্ট পেয়েছিল কারণ এবার তাঁর সামনেই আমাকে গ্রেপ্তার করেছিল! দোয়া করবেন মিথ্যা মামলায় আমার কিছুই করতে পারবে না। আমাকে ডাকাতি মামলার আসামীও একবার করেছিল। আল্লার কাছে, সত্যের জয় হবেই। আপনি জানেন আমার কিছুই নাই। দয়া করে ছেলেমেয়েদের দিকে খেয়াল রাখবেন। বাড়ি যেতে বলে দিতাম। কিন্তু ওদের লেখাপড়া নষ্ট হয়ে যাবে।

আমাকে আবার রাজবন্দী করেছে, দরকার ছিল না। কারণ রাজনীতি আর নাই, এই রাজনীতি আর করবো না। সরকার অনুমতি দিলেও আর করব না।

যে দেশের মানুষ বিশ্বাস করতে পারে যে আমি ঘুষ খেতে পারি সে দেশে কোন কাজই করা উচিত না। এ দেশে ত্যাগ ও সাধনার কোন দামই নাই। যদি কোনদিন জেল হতে বের হতে পারি তবে কোন কিছু একটা করে ছেলেমেয়ে ও আপনাদের নিয়ে ভালভাবে সংসার করব। নিজেও কষ্ট করেছি আপনাদেরও দিয়েছি। বাড়ির সকলকে আমার ছালাম দিবেন, দোয়া করতে বলবেন। আপনার ও মায়ের শরীরের প্রতি যত্ন নিবেন। চিন্তা করে মন খারাপ করবেন না। মাকে কাঁদতে নিষেধ করবেন। আমি ভাল আছি।

আপনার স্নেহের
মুজিব

ঘই : গোপালগঞ্জের বাসাটী ভাড়া দিয়ে দিবেন, বাসার আর দরকার হবে না।