কিমের শক্তি বোন ইয়ো জং

ঢাকা, বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯ | ১২ আষাঢ় ১৪২৬

কিমের শক্তি বোন ইয়ো জং

রাশেদ আহমেদ ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ০৩, ২০১৯

print
কিমের শক্তি বোন ইয়ো জং

কিম জং উনের যে প্রতিমূর্তি আধুনিক বিশ্ব দেখছে তার পেছনে পরিকল্পনাকারী এবং সর্বদা সতর্ক অবস্থানে থাকা মস্তিষ্কগুলোর একটি কিমেরই ছোট বোন কিম ইয়ো জং।

২০০০ সালের পর থেকেই ভাইকে একচ্ছত্র শাসক হিসেবে অধিষ্ঠিত করার জন্য কাজ করে যান ইয়ো। ক্ষমতায় আসার পরও তিনি উনের প্রত্যেকটি পদক্ষেপ পর্যবেক্ষণ করে পরামর্শ দেন বলে ধারণা করা হয়। উনের জনদরদি রূপ যে ইয়োরই মস্তিষ্কপ্রসূত সে কথা বলাই বাহুল্য। কিন্তু নিজেকে সবার দৃষ্টির আড়ালে রাখতেই ইয়োর আগ্রহ বেশি। ২০১২ সাল থেকে কিমের ভ্রমণ পরিকল্পনার সব দায়িত্ব কাগজে কলমে তার ওপর অর্পিত হলেও দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা কমিশনের সঙ্গে তিনি যুক্ত আছেন এমন কথার উল্লেখ পাওয়া যায় খুব সামান্য।

এ বিষয়ে সর্বশেষ এবং বেশি আলোচিত ব্যাপারটি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের বৈঠক। সিঙ্গাপুরে যেটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই সাক্ষাৎকালে যে বিষয়টি সবার দৃষ্টি কাড়ে, সেটি হলো সমঝোতায় সই করার জন্য টেবিলের ওপর রাখা কলম। সোনালি রঙের ওই কলমের গায়ে ছিল ট্রাম্পের স্বাক্ষর। ওই কলমে সই করেননি কিম জং।

একেবারে শেষ মুহূর্তে মি. কিমের প্রভাবশালী বোন কিম ইয়ো জং ভাইয়ের দিকে একটি বলপয়েন্ট কলম এগিয়ে ধরেন, যা দিয়ে তিনি চুক্তিতে সই করেন। বিশ্লেষকরা বলছেন, এই ঘটনার মধ্য দিয়ে প্রমাণ হয় নেপথ্যে হলেও কিমের সিদ্ধান্তে কতটা জড়িয়ে আছেন ছোট বোন!