‘তরুণ প্রজন্ম যথেষ্ট সচেতন’

ঢাকা, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

‘তরুণ প্রজন্ম যথেষ্ট সচেতন’

শাহ আজম ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮

print
‘তরুণ প্রজন্ম যথেষ্ট সচেতন’

চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। রাজনীতি ও নির্বাচন নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেন আমাদের প্রতিনিধি শাহ আজম

আপনি একজন তরুণ ব্যারিস্টার, নতুন প্রজন্ম অর্থাৎ তরুণ ভোটারদের কাছ থেকে কী রকম সাড়া পাচ্ছেন?
তরুণ প্রজন্ম অর্থাৎ নতুন ভোটাররা যথেষ্ট সচেতন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কারণে তরুণ প্রজন্ম অবশ্যই নৌকার প্রতীককে বেছে নেবেন।

প্রয়াত সিটি মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী আপনার পিতা। নির্বাচনী প্রচারণায় তার জনপ্রিয়তা আপনার কতটুকু কাজে আসছে?
আমি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করে আসছি। আমার আব্বাও আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে তিনবার সিটি মেয়র হয়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। তার জনপ্রিয়তা আমার পরিচিতির ব্যাপারে যথেষ্ট কাজে আসছে।

আপনার নির্বাচনী এলাকার ভোটারসহ সাধারণ মানুষের প্রতি আপনার আস্থা কেমন?
কোতোয়ালি আসনে নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের প্রতি আমার যথেষ্ট আস্থা আছে। ভোটাররা অবশ্যই উপযুক্ত প্রার্থীকে বেছে নেবেন যার মাধ্যমে এলাকার উন্নয়ন হবে।

আপনার আসনে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ হবে এ ব্যাপারে আপনার মন্তব্য কি?
ইভিএম ভোট পদ্ধতিকে আমি স্বাগত জানাই। এই পদ্ধতিতে ভোটাররা নির্ভুলভাবে তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবেন। নির্বাচনের কমিশনের এই উদ্যোগ প্রশংসার দাবি রাখে।

মাঠ পর্যায়ে প্রচারণায় ভোটারসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ আপনাকে কীভাবে গ্রহণ করছে?
প্রতিদিন আমি গণসংযোগকালে এলাকার মানুষের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। ভোটাররা অবশ্যই উন্নয়নের পক্ষে এবং স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিকে বেছে নেবেন বলে আমার বিশ্বাস।

নির্বাচনে জয়লাভের ব্যাপারে আপনি কতটুকু আশাবাদী?
ভোটাররা বিগত গত ১০ বছরে সারা দেশের উন্নয়ন দেখে নৌকা প্রতীকে রায় দেবেন।

আপনার নির্বাচনী এলাকায় এত প্রার্থী থাকতে ভোটাররা কেন আপনাকে বেছে নেবেন?
আগের তুলনায় এলাকার সাধারণ মানুষ এখন অনেক সচেতন। তারা সারা দেশের উন্নয়ন বিবেচনা করে কোতোয়ালি এলাকায়ও নৌকার প্রার্থীকে বেছে নেবেন।

নির্বাচিত হলে প্রথম আপনি আপনার এলাকার কোন বিষয়টি গুরুত্ব দেবেন?
আমি এলাকায় প্রথম শিক্ষা ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নসহ নাগরিক সুবিধাগুলো বাস্তবায়নে কাজ করব।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সম্পর্কে আপনার মূল্যায়ন কী?
আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বর্তমানে কারাগারে আছেন। এটা আদালতের বিষয়। এই ব্যাপারে আমি কোনো মন্তব্য করতে চাই না।

বর্তমান নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে আপনি কতটুকু সন্তুষ্ট?
নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে আমি শতভাগ সন্তুষ্ট। আমার নির্বাচনী এলাকায় এখনো পর্যন্ত কোনো সহিংস ঘটনা ঘটেনি। প্রশাসন নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

নির্বাচিত হলে আপনার এলাকায় কী করার পরিকল্পনা আছে?
নির্বাচিত হলে আমি আওয়ামী লীগের ঘোষিত নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী, এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাব।

আপনার এলাকায় প্রধান সমস্যা কি?
আমার নির্বাচনী এলাকায় তেমন কোনো সমস্যা নেই।

আপনার আসনে জাতীয় পার্টির এক কেন্দ্রীয় নেতাকে বাদ দিয়ে আপনাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে আপনার মতামত কি?
আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ড আমাকে উপযুক্ত মনে করেছে বলে মনোনয়ন দিয়েছেন। এটা কেন্দ্রের নীতি-নির্ধারকদের সিদ্ধান্তের ব্যাপার।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ