মাগফিরাতের দশ দিন

ঢাকা, রবিবার, ৭ জুন ২০২০ | ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

মাগফিরাতের দশ দিন

ডেস্ক রিপোর্ট ১১:২৫ অপরাহ্ণ, মে ০৪, ২০২০

print
মাগফিরাতের দশ দিন

পবিত্র রমজান মাসের মধ্যভাগের দশক অত্যন্ত ফজিলতের। এই দশ দিন মাগফিরাতের। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের ওপর রোজা ফরজ করেছেন।

সেই কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে পবিত্র কুরআনে আল্লাহতাআলা বলেন- ‘হে ঈমানদারগণ! তোমাদের পূর্ববর্তী উম্মতের মতো তোমাদের ওপরও রোজা ফরজ করা হয়েছে, যাতে তোমরা তাকওয়ার অধিকারী হতে পার।’ (সুরা বাকারা-১৮৩)

সংযমের মাস রমজান, আল্লাহর রহমত পাওয়ার জন্য প্রতিটি ক্ষেত্রে সংযমী ও নিয়ন্ত্রিত আচরণ করতে হবে। নিয়মানুবর্তিতা, সুশৃঙ্খল জীবন ও আল্লাহর ওপর নির্ভরতা সব সংকট উত্তরণে সহায় হবে! আল্লাহর রহমত লাভ করতে পারলেই বিপদ-আপদ ও বালামুসিবত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বর্ণনা করেন, ‘রাসুলুল্লাহ (সা.) ছিলেন সকল মানুষের মধ্যে সবচেয়ে বড় দানশীল। যখন রমাদান আসত, জিবরাইল (আ.) প্রতি রাতে আসতেন, কোরআনের তালিম করতেন, তখন রাসুলুল্লাহ (সা.) প্রবাহিত বায়ু অপেক্ষা অধিক হারে দান খয়রাত ও নেক আমল করতেন।’

অন্য বর্ণনায় রয়েছে : ‘রমাদান এলে রাসুল (সা.) এত বেশি দান খয়রাত করতেন, যেন তা প্রবাহিত বায়ু।’ (বুখারি, হাদিস : ৪৭১১; মুসলিম, হাদিস : ২৩০৮)। আল্লাহর রহমত পেতে সৃষ্টির প্রতি দয়াশীল হতে হবে। নবীজি (সা.) বলেন, ‘তোমরা দুনিয়াবাসীর প্রতি রহম কর, আসমানওয়ালা খোদা তোমাদের প্রতি রহম করবেন।’ (বুখারি)।