ভেতরের শত্রু থেকে কীভাবে সতর্ক হব?

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

ভেতরের শত্রু থেকে কীভাবে সতর্ক হব?

খোলা কাগজ ডেস্ক ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৩, ২০১৯

print
ভেতরের শত্রু থেকে কীভাবে সতর্ক হব?

প্রশ্নটি করেছেন জান্নাতুল মাওয়া, ভেদরগঞ্জ, শরীয়তপুর থেকে

যখনই আমরা কোনো গুনাহে জড়াই বা ভুল করে ফেলি, তখনই সাধারণত শয়তানকে তার ওয়াসওয়াসার জন্য দোষ দিতে শুরু করি। কিন্তু আমরা নিজেদের অন্তরে লুকিয়ে থাকা শক্তিশালী এক শত্রুর কথা ভুলে যাই। শত্রুটি হলো আমাদের নফস।

এই নফস সব সময় আমাদের সঙ্গেই থাকে। খাওয়ার সময়, কাজের সময়, ঘুমানোর সময় এই নফস আমাদের ভেতরেই অবস্থান করে।

নফসের সাধারণ একটি বৈশিষ্ট্য হলো, এটি মানুষকে সব সময় মন্দের দিকে প্ররোচিত করে। যদি আল্লাহ কোনো ব্যক্তির ওপর দয়া না করেন, তবে নফস ব্যক্তিকে সব সময়ই মন্দ কাজ করার দিকে উৎসাহ দিতে থাকে। নফসের এই ভয়াবহ প্রবণতার কারণেই রসুল (সা.) তার প্রায় সব ভাষণের আগেই দোয়াটি করতেন- আমি আমার নফসের ক্ষতি থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় চাই!

যদি স্বয়ং রসুল (সা.) এমনভাবে বলতে পারেন, সেখানে আমাদের কী পরিমাণ সতর্ক থাকা প্রয়োজন তা বলার অপেক্ষা রাখে না। একবার হজরত আবু বকর (রা.) রসুল (সা.)-এর কাছে জিজ্ঞাসা করলেন, সকালে ও রাতে তিনি কী দোয়া করতে পারেন। রসুল (সা.) তখন তাকে যে দোআটি শিক্ষা দিলেন তা হলো- হে দৃশ্য ও অদৃশ্য জ্ঞানের অধিকারী আল্লাহ, আসমান ও দুনিয়ার সৃষ্টিকারী, সব কিছুর প্রভু ও প্রতিপালক, আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি তুমি ছাড়া ইবাদতের যোগ্য কেউ নেই। আমি তোমার কাছে আমার নফসের মন্দ প্রভাব থেকে আশ্রয় চাচ্ছি এবং আশ্রয় চাচ্ছি শয়তান ও তার অংশীদারদের মন্দ প্রভাব থেকে। (আবু দাউদ, হাদিস-৫০৬৭, হাদিসের মান : সহীহ)।

আল্লাহর আমাদের সবাইকে নফসের এই বাধার পাহাড় পাড়ি দিয়ে তার কাছে পৌঁছার তওফিক দান করুন।