অপচয়ের শাস্তি কী?

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ২ আশ্বিন ১৪২৬

অপচয়ের শাস্তি কী?

খোলা কাগজ ডেস্ক ৯:১৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৯

print
অপচয়ের শাস্তি কী?

প্রশ্নটি করেছেন আরিয়ানা বিনতে ফেরদৌস, ধাপ, রংপুর থেকে

বর্তমান পৃথিবীতে মানুষ আল্লাহতায়ালার নেয়ামতের সঠিক ব্যবহার এবং সংরক্ষণ থেকে উদাসীন হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু ইসলাম অপব্যয় ও অপচয় নিষিদ্ধ করেছে। পবিত্র কোরআনে আল্লাহতায়ালা অপচয়কারীকে শয়তানের ভাই বলে ঘোষণা করেছেন। অপচয় ও অপব্যয়ের কারণে মানুষের জীবন থেকে বরকতও হ্রাস পায়। এর ফলে মানুষের ধন-সম্পদ ক্রমে হ্রাস পায়।

মহান আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা আহার কর ও পান কর, কিন্তু অপব্যয় করবে না। নিশ্চয়ই আল্লাহতায়ালা অপচয়কারীকে পছন্দ করেন না’ (সূরা : আরাফ-৩১)।

অন্য আয়াতে আল্লাহতায়ালা বলেন, আর তোমাদের অর্থ-সম্পদ অপ্রয়োজনীয় কাজে খরচ করবে না। জেনে রেখ, যারা অপব্যয় করে তারা শয়তানের ভাই, আর শয়তান নিজ প্রতিপালকের ঘোর অকৃতজ্ঞ’ (সূরা : বনি ইসরাইল-২৬, ২৭)।

প্রিয়তম রসুল (সা.) বিভিন্ন হাদিসে পানি পান করার আদব শিখিয়েছেন। এর প্রতিটিতে নিহিত রয়েছে আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিধান। একটি হাদিসে রসুল (সা.) পানির বড় পাত্র থেকে সরাসরি মুখ লাগিয়ে গড় গড় করে পান করা নিষেধ করেছেন, বরং ছোট পেয়ালায় ঢেলে তারপর দেখে পান করার জন্য আমাদের শিখিয়েছেন।

পানি ব্যবহারে আরও নির্দেশনা দিয়েছেন। এক হাদিসে এসেছে, রসুল (সা.) বলেন, ‘তোমরা স্থির পানিতে পেশাব কর না, নাপাকি ফেল না, কেননা তা তোমরা ব্যবহার করবে’ (আবু দাউদ)।