তায়াম্মুম কীভাবে করতে হয়?

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

তায়াম্মুম কীভাবে করতে হয়?

খোলা কাগজ ডেস্ক ৯:২৩ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৫, ২০১৮

print
তায়াম্মুম কীভাবে করতে হয়?

প্রশ্নটি জানতে চেয়েছেন শামিমা নাসরীন হ্যাপী, সদর, বরগুনা থেকে

তায়াম্মুম
পানি পাওয়া না গেলে কিংবা পানি ব্যবহারের ফলে জীবন সংকটাপন্ন হওয়ার আশঙ্কা থাকলে তায়াম্মমের মাধ্যমে পবিত্র হওয়া যায়।

তায়াম্মুম অর্থ ইচ্ছা করা। ওজু ও গোসলের পরিবর্তে তায়াম্মুম করা যায়। শরিয়তের পরিভাষায়, পবিত্র মাটি দ্বারা পাক ও পবিত্র হওয়ার নিয়তে মুখমণ্ডল ও উভয় হাত কনুইসহ মাসেহ করাকে তায়াম্মুম বলে।

তায়াম্মুমের ফরজ ৩টি
১. পবিত্রতা অর্জনের নিয়ত করা।

২. উভয় হাত পবিত্র মাটিতে মেরে তা দিয়ে সমস্ত মুখমণ্ডল মাসেহ করা।

৩. উভয় হাত মাটিতে মেরে তা দিয়ে উভয় কনুই মাসেহ করা।

তায়াম্মুমে সুন্নাত ৭টি
১. তায়াম্মুমের শুরুতে বিসমিল্লাহ বলা, ২. উভয় হাত পাক পাটিতে মেরে সামনের দিকে নেওয়া ৩. তারপর উভয় হাত পেছনের দিকে নিয়ে আসা, ৪. হাত মাটিতে মারার পর মাটি ঝেড়ে ফেলা, ৫. মাটিতে হাত মারার সময় আঙ্গুলগুলো ফাঁক করে রাখা, ৬. মাসেহের তারতিব ঠিক রাখা, ৭. বিরতিহীনভাবে তায়াম্মু করা।

তায়াম্মুমের মুস্তাহাব
যে ব্যক্তির প্রবল ধারণা যে, শেষ সময় পর্যন্ত পানি পাওয়া যাবে, এমন ব্যক্তির জন্য শেষ সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করা মুস্তাহাব। আর যদি পানি পাওয়ার সম্ভাবনা না থাকে তাহলে তায়াম্মুম করে মুস্তাহাব ওয়াক্তে নামাজ আদায় করা।

তায়াম্মুম ভঙ্গের কারণ
যেসব কারণে ওজু নষ্ট হয় সেসব কারণে তায়াম্মুম ভঙ্গ হয়। যেসব কারণে গোসল ওয়াজিব হয়, সেসব কারণে তায়াম্মুম ভঙ্গ হয়ে যায়। যদি পানি না পাওয়ার কারণে তায়াম্মুম করা হয়ে থাকে, তাহলে পানি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তায়াম্মুম ভঙ্গ হয়ে যাবে।

আবার কোনো কারণ বা রোগের কারণে যদি তায়াম্মুম করা হয়ে থাকে, তবে সে কারণ বা রোগ দূর হয়ে গেলে তায়াম্মুম ভঙ্গ হয়ে থাকে।

ধর্মকথা নিয়ে আপনার কোনো প্রশ্ন জানার থাকলে আমাদের কাছে লিখে পাঠান-খোলা কাগজ; বসতি হরাইজন, ১৮/বি, বাসা-২১, রোড-১৭, বনানী, ঢাকা-১২১৩। ই-মেইল : kholakagojnews@gmail.com এ ঠিকানায়।