নাগরপুরে কঠোর লকডাউনেও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

ঢাকা, রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪ আশ্বিন ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নাগরপুরে কঠোর লকডাউনেও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
🕐 ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২১

নাগরপুরে কঠোর লকডাউনেও বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

কঠোর লকডাউনেও ঈদ পরবর্তী সময়ে টাঙ্গাইলের নাগরপুরের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে বিনোদন প্রেমীদের ভীর লক্ষ্য করা গেছে। সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ বলবত থাকলেও প্রশাসনের তদারকি না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সমগ্র উপজেলায় করোনা রোগী বৃদ্ধির আশংকা করছেন অনেকেই।

ঈদের দিন থেকে শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত দেখা যায় উপেন্দ্র সরোবর (দীঘি) ও কেদারপুর ধলেশ্বরী নদীর উপর নির্মিত শেখ হাসিনা সেতুতে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। সেখানে কোন রকম সামাজিক দূরত্বের তোয়াক্কা না করে ঈদ আনন্দে মেতে উঠেছেন নানা বয়সের দর্শনার্থীরা।

ঋতু বৈচিত্রের দেশ বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দযর্য দেখতে কার না ভাল লাগে। ব্যস্তময় জীবনে সুযোগ পেলেই একটু স্বস্তি পেতে পরিবার পরিজন নিয়ে বেড়িয়ে পড়েন। ঈদের আনন্দকে উপভোগ করতে কোন রকম সামাজিক দুরত্বের তোয়াক্কা না করে ছুটে আসছেন তারা।

নাগরপুর উপজেলায় উল্লেখযোগ্য কোন বিনোদন কেন্দ্র না থাকায় এই দুটি স্থান ঈদে দর্শনার্থীদের আগমনে মূখোরিত হয়ে উঠে। তাই ঈদ উপলক্ষ্যে আনন্দ উপভোগ করতে বিনোদন প্রেমিদের প্রাণ কেন্দ্র হয়ে উঠেছে উপেন্দ্র সরোবর (দীঘি) ও শেখ হাসিনা সেতু। প্রাকৃতিক সৌন্দযর্য ও মনোমুগ্ধকর পরিবেশ থাকলেও মুখে মাস্ক বিহীন অধিক সংখ্যক লোকের সমাগমে স্বাস্থ্যঝুকি বাড়ার আশংকা দেখা দিয়েছে।

স্বাস্থ্যবিধি না মেনে এসব এলাকায় হাজার হাজার নারী-পুরুষ, শিশু, কিশোর-কিশোরী ভীড় করছে। কেউ নৌকা ভাড়া নিয়ে আবার কেউ তীরে দাঁড়িয়ে ধলেশ্বরীর অবগাহন ও তার আগ্রাসী রুপ প্রত্যক্ষ করছে। নৌকা ও মিনি ট্রাক নিয়ে উচ্চস্বরে গান ও মিউজিকের তালে তালে চলছে উদ্যাম নৃত্য। সেতু নিচে দোকনীরা রীতিমত পসরা সাজিয়ে বসেছেন।

এদিকে স্থানীয়দের অভিযোগ ঈদ উপলক্ষে বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এখানে আসছে এবং কোন রকমের স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব মানা হচ্ছে না। এতে ব্যাপক হারে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশংকা রয়েছে। তা ছাড়া বেপরোয়া গতিতে উঠতি যুবকদের মটরসাইকেল চালানোয় স্থানীয়দের মাঝে দুর্ঘটনার আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন এলাকাবাসী।

 
Electronic Paper